বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০৮:৩২ অপরাহ্ন

ইউএন-রীড কর্মসূচীর জাতীয় পরামর্শক কর্মশালায় বক্তারা : কার্বন নি:সরণ হ্রাস হলে দেশ পরিবেশ ও আর্থিকভাবে লাভবান হবে

dipak-3-12-16-news-1pic-f1

দীপক শর্মা দীপু,কক্সভিউ :

সারা বিশ্বে জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে অত্যাধিক কার্বন নি:সরণ সহ ভয়াবহভাবে প্রাকৃতিক দুর্যোগ বাড়ছে। পরিবেশ সুরক্ষা এবং আর্থিকভাবে লাভবান হতে হলে দেশের মানুষকে সমন্বিত সম্মিলিত প্রয়াসে নতুন করে প্রাকৃতিক সবুজকে ফিরিয়ে আনতে হবে। এ জন্য বন ব্যবস্থাপনাকে শক্তিশালী, বন আইনের কার্যকর প্রয়োগে প্রকৃতির উপর অব্যাহত হুমকিকে মোকাবেলা জরুরী হয়ে পড়েছে।ইউএন-রীড বাংলাদেশের জাতীয় কর্মসূচীর পরামর্শক কর্মশালায় বক্তারা উপরোক্ত মন্তব্য করেন।

কর্মশালায় বন উজাড় রোধ করে কার্বন নি:সরন হ্রাস করা, বনের অবক্ষয় রোধ করে এই নি:সরন হ্রাস করা, মজুদ কার্বন সংরক্ষণ, কার্বন মজুদ বাড়ানো এবং টেকসই বন ব্যবস্থাপনার উপর সুপারিশ করা হয়। এই ৫টি সুপারিশ বাস্তবায়ন হলে দেশ পরিবেশ ও আর্থিকভাবে লাভবান হবে। কিন্তু এই সুপারিশের প্রেক্ষিতে কর্মশালায় বক্তারা বলেন- ‘প্রকল্প বাস্তবায়নের আগে কার্বন বিক্রির জন্য লাইসেন্স নিতে হবে, চুক্তি হতে হবে এবং কত পরিমাণ মজুদকৃত কার্বন থাকলে তা বিক্রির আওতায় আসবে তার টার্গেট থাকতে হবে। তা না হলে এ কর্মসূচি বাস্তবায়ন হবে অন্ধকারে ঢিল ছুড়ার মতো। তবে বন উজাড় ও বনের অবক্ষয়ের মাধ্যমে সৃষ্ট কার্বন নি:সরন হ্রাস প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে দেশের পরিবেশ সুরক্ষা হবে। অন্যদিকে সারা বিশ্বে এর প্রভাব পড়বে। বিশ্ববাসীও উপকৃত হবে।’ কর্মশালায় উন্নত রাষ্ট্রে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন না করে উন্নয়নশীল রাষ্ট্রে কেন করা হচ্ছে তা নিয়েও প্রশ্ন উঠে।

ইউএন-রীড জাতীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে কক্সবাজারের অভিজাত হোটেলে ৩ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন সহকারি বন সংরক্ষক ইউএন-রীড জাতীয় কর্মসূচীর প্রকল্পের পরিচালক রফিকুল হাসান। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক কাজি আবদুর রহমান।

মাওলানা আতিকুর রহমানের কোরআন তেলওয়াতের মাধ্যমে শুরু হওয়া কর্মশালায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইউএন-রীড কর্মসূচীর প্রকল্প ব্যবস্থাপক নাসিম আজিজ। প্রকল্পের ধারণা পত্র পাঠ করেন ইউএন-রীডের সুশাসন সমন্বয়কারি সৈয়দ মাহমুদ রিয়াদ। বাংলাদেশের বনাঞ্চল প্রাকৃতিক দূষণ, বর্তমান কার্বন দূষণ, নি:সরণ সহ প্রাকৃতিক অবস্থার উপর গবেষনাকৃত ধারণা পত্র তথ্য সূচির মাধ্যমে উপস্থাপন করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বনবিদ্যা ইনস্টিটিউট এর অধ্যাপক ইউএন-রীডের জাতীয় পরামর্শক ড. মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন।

প্রকৃতি বিষয়ক প্রশ্নপত্র, তথ্য উপাত্ত বিষয়ক পরিপত্র উপস্থাপন করেন চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বন বিদ্যা ইনষ্টিটিউটের সহযোগী অধ্যাপক ড.মোহাম্মদ মাহফুজুর রহমান। আলোচনায় অংশ নেন দক্ষিন বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো: আলী কবির, উত্তর বন বিভাগীয় কর্মকর্তা কেরামত আলী মল্লিক, কক্সবাজার কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো: শাহরিয়ার, সদর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হেলেনাজ তাহেরা, সহকারি বন সংরক্ষক সরওয়ার আলাম, মো: ইফসুফ, সোহেল রানা, সাংবাদিক ফজলুর কাদের চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা মো: শাহাজাহান, সাংবাদিক গবেষক বিশ্বজিত সেন, সাংবাদিক মুহাম্মদ আলী জিন্নাত, কক্সবাজার বন ও পরিবেশ সংরক্ষণ পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি দীপক শর্মা দীপু, টেকনাফের মো; শফিক মিয়া, আলমগীর চৌধুরী, মো: সাইফুল্লাহ, ফাসিয়া খালীর ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী, ইনানীর আবু সরোয়ার। ইউএন-রীডের জাতীয় পরামর্শক কর্মশালায় প্রশাসন, বনবিভাগ, জনপ্রতিনিধি,সাংবাদিক, সুশীল সমাজ, ক্রেল প্রকল্প, নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্টির প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করেন।

https://www.facebook.com/coxviewnews

Design BY Hostitbd.Com