Home / প্রচ্ছদ / ঈদগাঁওতে ১৫দিনের মাথায় মহাসড়কে পৃথক তিনটি সড়ক দুর্ঘটনা : নিহত ৪ : আহত অর্ধশতাধিক

ঈদগাঁওতে ১৫দিনের মাথায় মহাসড়কে পৃথক তিনটি সড়ক দুর্ঘটনা : নিহত ৪ : আহত অর্ধশতাধিক

Ajit Himu - 28-8-2015 (Eidgong accident)এম আবু হেনা সাগর, ঈদগাঁও:

চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের ঈদগাঁওতে ১৫ দিনের মাথায় পৃথক পৃথক তিনটি সড়ক দুর্ঘটনা সংঘটিত হয়। এতে ৪ জন নিহত ও অর্ধশতাধিক লোকজন আহত হয়।

জানা যায়, ৩০ আগস্ট আনুমানিক রাত দুইটার দিকে ইসলামাবাদ ইউনিয়নের ঢালার দোয়ার নামক স্থানে সড়ক দুর্ঘটনায় ৩জন নিহত ও ১৫জন আহত হয়।

তথ্য মতে, একটি পাগলকে বাঁচাতে গিয়ে শ্যামলী গাড়ির চালক বর্ণিত স্থানে গভীর রাত্রে হার্ডব্রেক করলে গাড়ি উল্টে গিয়ে এ ঘটনা ঘটে বলে যাত্রীসূত্রে প্রকাশ। উক্ত গাড়ীর যাত্রী বরিশালের কোতোয়ালী থানার আবু ফরাজীর পুত্র মামুন (২০), সদর উপজেলার মধ্যম পোকখালীর মৃত হাজী আবু শামার পুত্র মোহাম্মদ নুরুজ্জামান (৫৫) ও উখিয়ার মৃত মীর আহমদের পুত্র ছিদ্দিক আহমদসহ ১৫ জন গুরুতর আহত হয়ে ঈদগাঁওসহ দুরবর্তী বিভিন্ন হাসপাতাল ও ক্লিনিকে চিকিত্সাধীন রয়েছে।

এদিকে প্রত্যক্ষদর্শী যাত্রীরা ৩জন নিহত হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেন। অপরদিকে নিহত ও অন্যান্য আহত যাত্রীদের পূর্ণ পরিচয় পাওয়া যায়নি। আবার ১৬ আগস্ট একই স্থানে সকাল ১০টায় এস.আলম-সৌদিয়া মুখোমুখি সংঘর্ষে ২০জন গুরুতর আহত হয়। তবে নিহতের ঘটনা ঘটেনি।

অন্যদিকে ২৮ আগস্ট দুপুরে ঈদগাঁও মেহেরঘোনাস্থ সাতঘরিয়া পাড়া নামক স্থানে কক্স স্পেশাল সার্ভিস ও কলাভর্তি পিকআপের মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলে পিকআপ চালক নিহত হয়। অন্ততঃ ৬ জন গুরুতর আহত হয়। নিহত পিক আপ চালক রাশেদুল ইসলাম টিপু চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার খোরশেদ আলমের পুত্র বলে জানা যায়।

এদিকে সদর উপজেলার কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ঈদগাঁও পয়েন্টে পক্ষকালের মাথায় একের পর এক মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনা নিয়ে চালক ও যাত্রীদের মাঝে চরম আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। তবে উক্ত স্থানদ্বয়ে অতিসত্বর ইশারা চিহ্ন ও গতিরোধক বসানোর জোর দাবী জানান বিশাল এলাকার সচেতন মহল।

Leave a Reply

%d bloggers like this: