মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৩:৫৪ পূর্বাহ্ন

উখিয়ায় খাদ্য গুদাম থেকে নিম্নমানের ৯ ট্রাক চাল আটক : সর্বত্র তোলপাড়

Rice -2হুমায়ুন কবির জুশান, উখিয়া :

সরকারের ক্রয়নীতি লংঘন করে সস্তা দামের নিম্নমানের চাল সরবরাহ দেয়ার সময় উখিয়া খাদ্য গুদামে স্থানীয় ক্ষমতাসীন দলের নেতা কর্মীরা শনিবার সন্ধ্যার দিকে ১৫০ মেট্টিক টন চাল বোঝাই ৯টি ট্রাক আটক করেছেন। ক্ষমতাসীন দলের নেতৃবৃন্দ অভিযোগ করেছেন, স্থানীয় খাদ্য গুদাম কর্মকর্তার সাথে যোগসাজসে মিল মালিকগন দেশের উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন বাজার থেকে সস্তা দামের চাল সরকারি গুদামে সরবরাহ দিয়ে যাচ্ছিলেন। আর এতে করে এলাকার কৃষক সরকারের উচ্চমূল্যের ধার্য্য করা ভর্তুকির টাকা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

অপরদিকে সরকারি নিয়ম না মেনে মিল মালিক ও অসাধু খাদ্য কর্মকর্তারা রাতারাতি বিপুল অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন।

জানা গেছে, বাজারে ধান-চালের দাম উৎপাদন খরচের চেয়ে কম হওয়ায় সরকার এক্ষেত্রে কৃষককে সহযোগিতা দেয়ার অংশস্বরুপ প্রতি কেজি চালের মূল্য নির্ধারণ করে ৩১ টাকা করে। জেলা খাদ্য বিভাগ সুত্রে জানা গেছে, স্থানীয় কৃষকদের উৎপাদিত চাল মিল মালিকদের মাধ্যমে সরকারি গুদামে সংগ্রহ করার কথা।

এক্ষেত্রে অভিযোগ উঠেছে, কক্সবাজার জেলার চেয়ে দেশের উত্তরাঞ্চলের বাজারে চালের দাম অনেক কম বিধায় কক্সবাজারের মিল মালিকরা বেশী মুনাফার লোভে কম দামে নিম্নমানের চাল এনে গুদামে সরবরাহ দিচ্ছে। প্রতিদিন ট্রাকে ট্রাকে উত্তরাঞ্চলের জেলা থেকে চাল এনে সরকারি গুদামগুলোতে ভরা হয়েছে।

কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা শাহজাহান সিকদার বলেন, উখিয়া খাদ্য গুদামে দিন-রাত ভরা হয়েছে নিম্নমানের চাল। স্থানীয় বাজার থেকে মিল মালিকরা এক কেজি চালও সংগ্রহ করেননি। এ কারনে স্থানীয় শত শত কৃষকের ধান তাদের গোলায় রয়ে গেছে। তাই গুদামে ভরার জন্য সাতক্ষীরা থেকে আনা ৯ ট্রাক চাল আটকিয়ে আমরা বঞ্চিত কৃষকের ক্ষোভের কথা জানাচ্ছি।

উখিয়া উপজেলা যুবলীগ সভাপতি মুজিবুল হক আজাদ জানান, খাদ্য কর্মকর্তাদের সাথে যোগসাজসে মিল মালিকরা দীর্ঘদিন ধরে স্থানীয় কৃষকের চাল বাদ দিয়ে বাইরের জেলা থেকে নিম্নমানের চাল গুদামজাত করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন। আমরা বার বার এসব বন্ধ করতে সাবধান করেছিলাম। কিন্তু তারা তা শুনেননি। উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবুল মনসুর চৌধুরী বলেন-‘কক্সবাজারের কৃষকদের নিকট থেকে এক কেজি চালও সংগ্রহ না করে খাদ্য বিভাগের দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তারা দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে কম দামের চাল আনার প্রতিবাদে আমাদের কর্মীরা চাল বোঝাই ট্রাক আটক করেছে। স্থানীয় কৃষকের চাল ক্রয়ের নিশ্চয়তা প্রদান করা হলে আমরা কঠোর অবস্থা থেকে সরে আসব।

কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মোঃ আলী হোসেন নিম্ন মানের খাদ্য সংগ্রহ প্রসঙ্গে বলেন, নিম্নমানের খাদ্য সংগ্রহের অভিযোগে গত সপ্তাহে রামুতে ৪৩ মেঃ টন চাল বোঝাই বগুড়া থেকে আনা ২ টি ট্রাক আটকের পর মামলা করা হয়েছে। এমনকি এ অভিযোগে দফায় দফায় খাদ্য সংগ্রহও বন্ধ করা হয়। উখিয়ায় আটক চাল বোঝাই ৯টি ট্রাক জব্দের ঘটনায় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মোঃ তানভীর হোসেন জানান, স্থানীয় কৃষকের বোরো (আতপ) চাল সংগ্রহ কার্যক্রমের আওতায় কক্সবাজার জেলায় ৮ হাজার ৪৯২ মেট্টিক টন চাল সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। এ পর্যন্ত লক্ষ্যমাত্রার অর্ধেক পরিমাণ চাল সংগ্রহ করা হয়েছে।

https://www.facebook.com/coxview

Design BY Hostitbd.Com