Home / প্রচ্ছদ / সাম্প্রতিক... / উখিয়ায় খ্রীষ্ট্রান ধর্মীয় নেতাসহ ৩ জন আটক

উখিয়ায় খ্রীষ্ট্রান ধর্মীয় নেতাসহ ৩ জন আটক

Jushan 28-3-16 news 2pic- f1 (1)

হুমায়ুন কবির জুশান; উখিয়া :

কক্সবাজারের উখিয়ার উপকূলীয় এলাকা মনখালী, চোয়াংখালীর রোহিঙ্গা বস্তিতে খ্রীষ্ট্রান ধর্ম গ্রহনে উব্ধুদ্ধকরণসহ মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গাদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণের অভিযোগে সোমবার সকাল ৯ টার দিকে ন্যাশনাল খীষ্ট্রান ফেলোসিফ অব বাংলাদেশের সভাপতি বিসক ফিলিপ অধিকারীসহ ৩ জনকে আটক করেছে ইনানী পুলিশ ফাঁড়ি। এ সময় তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় বিপুল পরিমাণ খীষ্ট্রান ধমীয় বাইবেল ও ত্রাণ সামগ্রী।

গত কয়েকদিন ধরে মিয়ানমার থেকে আসা উপকূলীয় এলাকার মনখালী, চোয়াংখালীর রোহিঙ্গা বস্তিতে খ্রীষ্টান ধর্মে দীক্ষা নেওয়ার জন্য বস্তির রোহিঙ্গাদের মাঝে বাইবেলসহ ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করে আসছিল ন্যাশনাল খ্রীষ্টান ফেলোসিফ অব বাংলাদেশের সভাপতি ফিলিপ অধিকারী সহ কয়েকজন। তারা স্থানীয় প্রসাশনের অগোচরে রোহিঙ্গাদের খ্রীষ্টান ধর্মে উব্ধুদ্ধ করে যাচ্ছিল। মিয়ানমার থেকে আসা বস্তির রোহিঙ্গাদের খ্রীষ্টান ধর্মে ধর্মান্তরিত করার খবর স্থানীয় জনগণের কাছে পৌঁছালে স্থানীয় মেম্বার জাহেদুল আলম বিষয়টি স্থানীয় ইনানী পুলিশ ফাঁড়িকে অবহিত করে।

সোমবার সকাল ৯ টার দিকে ইনানী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইকরাম হোসেনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ খ্রীস্টান নেতাদের আটক করে ফাঁড়িতে নিয়ে আসে।

আটককৃতদের মধ্যে রয়েছে ন্যাশনাল খ্রীষ্টান ফেলোসিফ অব বাংলাদেশের সভাপিত বিসক ফিলিপ অধিকারী (৩৭) পিতা নবীন চন্দ্র অধিকারী, মোকছেদপুর, গোপালগঞ্জ। আরো রয়েছেন পালক বিকাশ মন্ডল (৩৩) পিতা বকুল মন্ডল, কালিগ্রাম। শংকর দাশ (৩৫) পিতা মন্টু দাশ শৈলাকুপা ঝিনাইদহ। তাদের কাছ উদ্ধারকৃত জিনিসের মধ্যে রয়েছে ২ বস্তা খ্রীষ্টান ধর্মীয় বাইবেলসহ বিভিন্ন বই, ১৫শ কেজি চাল, ৯০ কেজি চিড়া, ৯০ কেজি মসুর ডাল, ৫০ টি কম্বল, ৬০ লিটার তেল। পরে তাদের উখিয়া থানায় নিয়ে আসা হয়।

এ ব্যাপারে উখিয়া থানার ওসি হাবিবুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা তিনি বলেন, প্রশাসনের অগোচরে তারা ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করার কারনে তাদের আটক করা হয়।

পরে জানা গেছে, তিনি আন্তর্জাতিক মানের খ্রীষ্টান ধমীয় ব্যক্তিত্ব। তাই উধ্বর্তন কর্তৃপক্ষের সাথে আলাপ করে আর কোনদিন এলাকায় প্রশাসনের বিনা অনুমতিতে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হবেনা মর্মে মুছলেকা নিয়ে দুপুর ২ টার দিকে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply