Home / প্রচ্ছদ / সাম্প্রতিক... / অপরাধ, আইন-আদালত / উখিয়া গৃহবধূকে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে কুপিয়ে আহত করেছে দুবৃর্ত্তরা

উখিয়া গৃহবধূকে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে কুপিয়ে আহত করেছে দুবৃর্ত্তরা

Ahota -Rafiq Kutbazar 07.06.16 news 1pic

রফিক মাহামুদ; কোটবাজার :

কক্সবাজারের উখিয়ার রুমখাঁ মহাজন পাড়া গ্রামে ধর্ষণের চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে দুর্বৃত্তরা এক গৃহবধুকে কুঁপিয়ে মারাত্মকভাবে জখম করেছে। জানা যায়, গত শনিবার বিকালের দিকে উপজেলার হলদিয়াপালং ইউনিয়নের রুমখাঁ মহাজন পাড়ায় এ ঘটনাটি ঘটে। গুরুত্বর আহত গৃহবধু রীনা প্রভা বড়ুয়া বর্তমানে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিত্সাধীন রয়েছে। এব্যাপারে গত সোমবার ৬ জুন রীনার স্বামী সুধীর বড়–য়া বাদী হয়ে কক্সবাজার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন আদালতে মৃত মধু সুধন বড়ুয়ার ছেলে রনধীর বড়ুয়া ও রাজাপালং রেজুরকুল গ্রামের মৃত নিবঞ্জ বড়ুয়ার ছেলে স্বদেশ বড়ুয়াকে আসামী করে মামলা দায়ের করা হয়। যার মামলা নং- ১৭১/২০১৬ইং।

আদালতে দায়েরকৃত মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার হলদিয়াপালং মহাজন পাড়া গ্রামে সুধীর বড়ুয়া একজন পরিবহন চালক। তিনি গাড়ী নিয়ে প্রায় সময় দেশের বিভিন্ন জায়গায় যাতায়ত করে গত শনিবার তার অনুপস্থিতির সুযোগে একদল দুবৃর্ত্ত বাড়িতে ঢুকে সুধীর বড়ুয়ার স্ত্রী রীনা বড়ুয়াকে জোর পূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করে। এসময় বাঁধা রীনা প্রভা বড়ুয়া বাধাঁ দেওয়ায় দুবৃর্ত্তরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে মারাত্মক ভাবে আহত করে। গুরুতর আহত গৃহবধুর শোর চিত্কারে স্থানীয় এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে দুবৃর্ত্তরা পালিয়ে যায়। পরে বিবস্ত্র অবস্থায় পড়ে থাকা রক্তাক্ত গৃহবধুকে উদ্ধার করে প্রথমে উখিয়া হাসপাতালে ভর্তি করালে অবস্থার অবনতি হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিত্সক কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে।

এ ব্যাপারে রীনা প্রভা বড়ুয়ার স্বামীর সুধীর বড়ুয়া বলেন, আমি একজন সাধারণ ড্রাইভার। আমার বিভিন্ন সময় গাড়ি নিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে ভাড়ায় যেতে হয়। তারই সুযোগ প্রতিনিয়ত সন্ত্রাসীরা আমার স্ত্রীর উপর কু-নজর দিয়ে আসছিল। গত শনিবার আমি বাড়িতে না থাকায় এ ঘটনা ঘটায়। আমি মামলায় উল্লেখিত আসামীদের গ্রেপ্তার পূর্বক শাস্তির দাবী জানাচ্ছি।

Leave a Reply