Home / প্রচ্ছদ / সাম্প্রতিক... / নির্বাচন সংক্রান্ত / কুতুবদিয়ায় দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর ভোট বর্জন

কুতুবদিয়ায় দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর ভোট বর্জন

বিএনপি-২,আ’লীগ-২,জামায়াত-১ : সংঘর্ষে আহত ৭২

Election Rasel - 23-3-2015 nsew 1pic f1

নিজস্ব প্রতিনিধি, কুতুবদিয়া :

কক্সবাজারের কুতুবদিয়ায় ২২ মার্চের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোট বর্জন করেছে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থী। তারা হলেন,বড়ঘোপ ইউনিয়নে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী মোটরসাইকেল প্রতীকের আলহাজ শাকের উল্লাহ ও আলী আকবর ডেইল ইউনিয়নের ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী ফিরোজ খাঁন চৌধুরী। বেলা ১১ টার দিকে ওই দুই প্রার্থী সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন।

এদিকে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে সংগঠিত সহিংস ঘটনায় গুলিবিদ্ধসহ গুরুতর আহত হয়েছে অন্তত ৭২ জন। যেসব কেন্দ্রে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে উত্তর ধুরুং ইউনিয়নে আজগরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, আফাজ উদ্দিন সিকদার পড়া,রাজাখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ফয়জানির বাপের পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। কৈয়ারবিল ইউনিয়নে ঘিলাছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। বড়ঘোপ ইউনিয়নে মনোহরখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, অমজাখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও মুরালিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। আলী আকবর ডেইল ইউনিয়নে পূর্ব আলী আকবর ডেইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, স্বন্দীপি পাড়া ইফাদ কিল্লা ও জসিম উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়,বড়ঘোপ ইউনিয়নে অমজাখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মুরালিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মনোহরখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্র। তবে এ ভোট কেন্দ্র দখলের অভিযোগ এনে আলী আকবর ডেইল ইউনিয়নের বিএনপির প্রার্থী ফিরোজ খান চৌধুরী সকাল ১১টায় সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে নির্বাচন বর্জন করেন। তার পাশাপাশি বড়ঘোপ ইউনিয়নের স্বতন্ত্রপ্রার্থী আলহাজ শাকের উল্লাহও দুপুর সাড়ে ১২টায় নির্বাচন বর্জন করেন। কক্সবাজার জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা) আনোয়ারুল নাছেরের সাথে নির্বাচনের ব্যাপারে কথা হলে তিনি জানান, তুচ্ছ ঘটনা ছাড়া নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে। সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত একটানা ভোট গ্রহণ করা হয় জানান।

এদিকে উত্তর ধুরুং ইউনিয়নের জামায়াতের প্রার্থী আ,স,ম শাহরিয়ার চৌধূরী ও আ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান সিরাজদ্দৌল্লা অস্ত্রশস্ত্র সজ্জিত সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে আ’লীগের প্রার্থী (নৌকা প্রতীক) মোঃ ইয়াহিয়া খানের সমর্থকদের ৪টি ভোট কেন্দ্র থেকে মারধর করে তাড়িয়ে দেয়। এ ঘটনায় প্রায় ৪০ জন সমর্থক আহত হলে তাদেরতে নিয়ে হাসপাতালে চলে এসে আ’লীগের প্রার্থী মোঃ ইয়াহিয়া খান দুপুর সাড়ে ১২টায় কুতুবদিয়া উপজেলা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ভোট বর্জন ঘোষণা দেন।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, কুতুবদিয়া উপজেলায় ৬ ইউনিয়নে বেসরকারিভাবে আলী আকবর ডেইল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে আ’লীগের প্রার্থী উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুচ্চফা বিকম ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী ফিরোজ খান চৌধুরী ২৮২১ ভোট পেয়েছে। বড়ঘোপ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে কক্বাজার জেলা আ’লীগের নেতা সাবেক উপজেলার চেয়ারম্যান আ’লীগের প্রার্থী এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী বিজয়ী হয়েছে, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী স্বতন্ত্রপ্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান আলহাজ শাকের উল্লাহ, কৈয়ারবিল ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে বিএনপির প্রার্থী জালাল আহমদ বিজয়ী হয়েছে, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আ’লীগের প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান আজমগীর মাতবর, লেমশীখালী ইউনিয়নে বিএনপির প্রার্থী আকতার হোছাইন বিজয়ী হয়েছে, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আ’লীগের প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান ছৈয়দ আহমদ কুতুবী, দক্ষিণ ধুরুং ইউনিয়নে বিএনপির প্রার্থী ছৈয়দ আহমদ চৌধুরী বিজয়ী হয়েছে, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন আল আযাদ, উত্তর ধুরুং ইউনিয়নে স্বতন্ত্রপ্রার্থী উপজেলা জামায়াতের সেক্রেটারী আ,স,ম শাহরিয়ার চৌধুরী বিজয়ী হয়েছে, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আ’লীগের প্রার্থী মোঃ ইয়াহিয়া খান কুতুবী।

%d bloggers like this: