Home / প্রচ্ছদ / গভীর সমুদ্রে জালে উঠে এল ‘ড্রাগন’!

গভীর সমুদ্রে জালে উঠে এল ‘ড্রাগন’!

https://i0.wp.com/coxview.com/wp-content/uploads/2022/04/Dragon-fish.jpg?resize=620%2C349

গভীর সমুদ্রে জালে উঠে এল ‘ড্রাগন’!

অনলাইন ডেস্ক :

পৃথিবীর নানান প্রান্তে গহীন অরণ্যে কিংবা গভীর সমুদ্রে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে এমন অনেক প্রজাতি যা মানুষ ও সকলের ধরাছোঁয়ার বাইরে। সম্প্রতি গভীর সমুদ্রে মাছ ধরছিলেন রোমান ফেডোরস্টোভ (৩৯) নামে রাশিয়ার এক মৎস্যজীবী। হঠাৎই জালের মধ্যে বড় বড় চোখ, ড্রাগনের মতো মুখ, অদ্ভুত এক প্রাণী দেখে ঘাবড়ে যান রোমান।

লম্বা লেজ থাকায় দেখতে এই মাছটির মুখ সামনের দিকে অনেকটা লম্বা দেখায় এবং মুখের দুই পাশে রয়েছে দুটি সুবিশাল চোখ। মাছের আকৃতি এবং গায়ের রং গোলাপী হলেও অনেকটাই মনে করিয়ে দেয় ড্রাগনের কথা। সাথে রয়েছে বড় কানের মতো পাখনাও। এক ঝলকে দেখেই মনে হবে সমুদ্র থেকে ড্রাগন উঠে এসেছে।

অনেকে মন্তব্য করেছেন— ‘প্রথমে তো ভেবেছিলাম আবার ড্রাগন যুগ ফিরে আসছে। অদ্ভুতদর্শন এই মাছ সত্যিই চমকে দেওয়ার মতো!’ আসলে সেটি গভীর সমুদ্রের এক বিরল প্রজাতির মাছ। এটির নাম ‘কিমায়রা’। এই মাছকে আবার ‘গোস্ট শার্ক’ও বলা হয়।

এ ধরনের মাছ সাধারণত সমুদ্রের সাড়ে আট হাজার ফুট নিচে থাকে। কখনও কখনও সাড়ে ৬০০ ফুটের মধ্যেও দেখা যায়।

সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামে ভাইরাল হয়েছে এক অদ্ভুত দর্শন মাছের ছবি। অনেকটা ড্রাগণনের মতো দেখতে এই মাছটির মুখ সামনের দিকে অনেকটা লম্বা এবং মুখের দুই পাশে রয়েছে দুটি সুবিশাল চোখ। মাছের আকৃতি এবং গায়ের রং অনেকটাই মনে করিয়ে দেয় ড্রাগনের কথা। সাথে রয়েছে উড়ো ড্রাগনের মত দুটি ডানা। সেই কারণে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি ভাইরাল হতে মাছটির নাম রাখা হয়েছে “বেবি ড্রাগন ফিশ”।

এই প্রজাতির মাছ দেখতে অদ্ভুত হয়ে থাকে। চোখগুলো বড় বড়, তুলতুলে দেহ, মাথাটা অনেকটা বড় হয়। যার ফলে এদের আকৃতি হয় অদ্ভুত।

%d bloggers like this: