শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২, ০৮:৩৮ পূর্বাহ্ন

চকরিয়ার কলেজ ছাত্র মোর্শেদ হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী গ্রেপ্তার

handcaff-chakaria-13-11-16
মুকুল কান্তি দাশ, চকরিয়া :
কক্সবাজারের চকরিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ছাত্র মোর্শেদ আলী হত্যাকান্ডের মূল পরিকল্পনাকারী জাফর আলম (৫২) কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। গত শনিবার ১২ নভেম্বর রাতে উপজেলার চিরিংগাস্থ জনতা মার্কেট এলাকা থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত জাফর আলম চকরিয়া পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের জনতা মার্কেট এলাকার মৃত মোজাহের আহমদ কোম্পানীর ছেলে। এই জাফর এলাকায় ভুমিদুস্য হিসেবেও পরিচিত।

পিবিআই কক্সবাজার অফিস সূত্র জানায়, গ্রেপ্তারকৃত জাফর আলমের বিরুদ্ধে হত্যাকান্ড ছাড়াও ভূমিদস্যুতা ও মানবপাচারের গুরুত্বর অভিযোগ রয়েছে। জাফর আলম বিভিন্ন এলাকার সরকারী জমি দখলকারী দরিদ্র লোকজনকে তার বাহিনী দ্বারা ভয়ভীতি, নির্যাতন ও মামলা মোকদ্দমায় জড়িয়ে উচ্ছেদ করে চকরিয়া, পেকুয়া ও বান্দরবানের লামা উপজেলায় শত শত একর সরকারী জায়গা দখলে রেখেছে এবং সেখানে একাধিক বাগান বাড়ী নির্মাণ এবং মৎস প্রজেক্ট তৈরী করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, চকরিয়ার বরইতলী ইউনিয়নের চাঁন্দের বাপের পাড়া গ্রামের আলী হোসেনের ছেলে চকরিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের বিবিএ পড়ুয়া ছাত্র মোর্শেদ আলী। তিনি বরইতলি ইউনিয়নের মাহমুদ নগর পাহাড়তলী এলাকায় দু’বছর আগে বনবিভাগের আনুমানিক দুই কানি পাহাড়ী জমি অবৈধভাবে ঘেরাও দিয়ে একটি দোচালা ঘর নির্মাণ করেন। কিন্তু গ্রেপ্তারকৃত জাফর আলম উক্ত জমি কিনতে মোর্শেদকে উপর চাপ সৃষ্টি করে। এক পর্যায়ে প্রাণনাশের হুমকির মূখে মোর্শেদ আলী দেড় কানি জমি জাফর আলমকে দু’লাখ টাকায় বিক্রি করতে রাজি হয়।

এদিকে জাফর কয়েক দফায় মোর্শেদকে ১ লাখ ৪৮ হাজার টাকা দেয়। পরবর্তীতে মোর্শেদ আলী বাজার মূল্যে উক্ত জমির দাম ছয় লাখ টাকার বেশি হবে দাবি করে জাফর আলমকে জমি দিতে অস্বীকৃতি জানায়। এতে জাফর আলম ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে হত্যার পরিকল্পনা করেন।

এরই ধারাবাহিকতায় চলতি বছরের ৩ মার্চ সন্ধ্যায় জাফর আলমের নির্দেশে জসিম উদ্দিনের নেতেৃত্বে অন্তত ২৫ জনের একটি স্বশস্ত্র বাহিনী মোর্শেদ আলীকে তার দখলীয় উক্ত জমিতে নির্মিত ঘরে আক্রমণ করে ধারালো অস্ত্র দিয়ে শরীরের নানা স্থানে মারাত্মক জখম করে। খবর পেয়ে তার নিকটাত্মীয়রা ঘটনাস্থলে যান। পরে দ্রুত উদ্ধার করে চকরিয়া হাসপাতালে নেওয়ার পথে মোর্শেদ মারা যায়।

পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন কক্সবাজার জেলা টিমের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তৌহিদুল আরিফ গ্রেপ্তারের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মোর্শেদ হত্যার ঘটনায় ৪ মার্চ সংশ্লিষ্ট আইনে চকরিয়া থানায় মামলা হয়। এই মামলাটি বর্তমানে পিবিআই তদন্ত করছে। গ্রেপ্তারকৃত জাফর আলমই এ হত্যাকান্ডের মূল পরিকল্পনাকারী হিসেবে তদন্তে উঠে এসেছে। ইতিপূর্বে এই মামলার অন্যতম আসামী মোঃ জসিম উদ্দিনকেও পিবিআই গ্রেপ্তার করে।

https://www.facebook.com/coxviewnews

Design BY Hostitbd.Com