Home / প্রচ্ছদ / সাম্প্রতিক... / অপরাধ, আইন-আদালত / চকরিয়ায় চাঁদা না দেয়ায় আইনজীবীকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগে মামলা

চকরিয়ায় চাঁদা না দেয়ায় আইনজীবীকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগে মামলা

Mamla - 6

মুকুল কান্তি দাশ; চকরিয়া :

কক্সবাজার জেলার চকরিয়ায় দাবিকৃত চাঁদা না দেয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে ভোট কেন্দ্র থেকে বাড়ি ফেরার পথে আনোয়ারুল ইসলাম সিকদার বাচ্চু নামের এক আইনজীবীকে দিন দুপুরে হত্যার চেষ্টা করেছে সশস্ত্র দুর্বৃত্তরা। ওইসময় তাকে মারধর করে লুটে নিয়ে গেছে নগদ ৩০হাজার টাকা।

২৩ এপ্রিল বেলা ১১টার দিকে উপজেলার সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়নের মানিকপুর উত্তরপাড়া মাদরাসার সামনে রাস্তার উপর ঘটেছে এ হামলার ঘটনা। এ ঘটনায় ওই আইনজীবী বাদি হয়ে ২৬ এপ্রিল মঙ্গলবার উপজেলা সিনিয়র জুড়িসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ৬জনকে আসামি করে একটি নালিশী অভিযোগ দায়ের করেছেন। আদালত বাদির অভিযোগটি নিয়মিত মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করতে চকরিয়া থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন।

এদিকে হামলার এ ঘটনায় আক্রান্ত আইনজীবী বাদি হয়ে মঙ্গলবার উপজেলা সিনিয়র জুড়িসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ৬জনকে আসামি করে একটি নালিশী অভিযোগ দায়ের করেছেন। মামলায় অভিযুক্ত আসামিরা হলেন, একই ইউনিয়নের মানিকপর ২নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা নজির আহমদের ছেলে আবু জাহেদ, আবুল কাসেম, মানিক, আবুল হাশেম, আবুল কালাম ও মৃত আবদুর রহমানের ছেলে নজির আহমদ।

মামলার আর্জিতে বাদি আনোয়ারুল ইসলাম সিকদার বলেন, তিনি দীর্ঘদিন ধরে চকরিয়া উপজেলা সিনিয়র জুড়িসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত ও চকরিয়াস্থ সিনিয়র সহকারি জজ আদালতে কর্মরত রয়েছেন। এ সুবাদে ৪-৫বছর ধরে স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে চকরিয়া সরকারি হাসপাতাল পাড়া এলাকায় বসবাস করছেন। তিনি মামলার আর্জিতে দাবি করেন, আদালতে কর্মরত থাকার কারনে তিনি দীর্ঘদিন ধরে এলাকার বাইরে রয়েছেন। এই সুযোগে অভিযুক্ত আসামিরা দুর্লোভের বশবর্তী হয়ে তার পারিবারিক জায়গা জমি দখলে নেয়ার ও নিয়োগকৃত চাষাদেরকে জমিতে চাষাবাদে নামতে দিবেনা মর্মে নানাভাবে হাঁকাবঁকা ও ভীতি প্রদর্শন করে আসছেন। কিছুদিন আগে লোক মারফত খবর পাঠায় তাদেরকে দুই লাখ চাঁদা দিতে হবে। না হলে এলাকায় তার জমি-জমা সবই দখল করে নেয়া হবে।

আইনজীবী আনোয়ারুল ইসলাম সিকদার বলেন, গত ২৩ এপ্রিল তিনি এলাকার ইউপি নির্বাচনে ভোট দিতে যান। ওইদিন বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ভোট প্রয়োগ করে বাড়ি ফেরার পথে অভিযুক্ত আসামিরা ইউনিয়নের মানিকপুর উত্তরপাড়া মাদরাসার সামনে রাস্তার উপর অর্তকিত তার গতিরোধ করেন। ওইসময় দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে অভিযুক্তরা তাকে হত্যার চেষ্টা করেন। অবস্থা বেগতিক দেখে তিনি শোর চিৎকার দিলে ভোট কেন্দ ও আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে ঘটনাস্থল থেকে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। ঘটনার সময় তাকে মারধর করে প্যান্টের পকেট থেকে নগদ ৩০হাজার টাকা লুটে নিয়ে গেছে বলে মামলার আর্জিতে অভিযোগ করেন এ আইনজীবী।

Leave a Reply