শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২, ০৯:৩৬ পূর্বাহ্ন

চকরিয়ায় জমি বিক্রয়ের ভাগের টাকা এনে না দেয়ায় স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

প্রতিকী ছবি

প্রতিকী ছবি

মুকুল কান্তি দাশ; চকরিয়া :

কক্সবাজারের চকরিয়ায় শ্বশুর বাড়ির জমি বিক্রয়ের টাকার ভাগ এনে না দেয়ায় স্বামী দাঁতের হাতুড়ে ডাক্তার ওসমান গণি গর্ভবতী স্ত্রী তছলিমা জন্নাত (২০)কে পিটিয়ে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সোমবার সকালে স্ত্রীকে পিটিয়ে স্বামী বাইরে চলে যায়। বিনা চিকিৎসায় দুপুর ১টার দিকে স্বামীর বাড়ীতে মারা যায় তছলিমা। উপজেলার হারবাং ইউনিয়নের আলীপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত স্বামী ওসমান গনি একই এলাকার আবু তাহের মেস্ত্রীর ছেলে।

অভিযোগ রয়েছে, দাঁতের হাতুড়ে ডাক্তার হিসেবে পরিচিত ওসমান গণি দন্ত চিকিৎসার একটি ফার্মেসি করে হারবাং স্টেশনে। ওসমান দীর্ঘদিন ধরে ইয়াবাসহ বিভিন্ন মাদক সেবনের পাশাপাশি ব্যবসাও করত বলে এলাকার লোকজন জানায়। মাদকাসক্ত হয়ে ঘরে ফেরার পর স্ত্রীকে প্রায়শই শারিরীক নির্যাতন চালাতো।

অভিযোগ মতে কয়েকদিন পূর্বে তছলিমার বাবা মাহবুব জমি বিক্রয় করে। ওই জমি বিক্রয়ের টাকার ভাগ এনে দিতে স্ত্রীকে চাপ দেয় ওসমান গণি। এনিয়ে সোমবার সকালে দু’জনের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে স্ত্রীকে বেদড়ক পেটায় স্বামী। এতে আহত হলেও তছলিমাকে চিকিৎসার ব্যবস্থা না করে ঘরে জিম্মিকরে ওসমান বাইরে চলে যায়। দুপুর ১টায় মারা যায় তছলিমা। স্ত্রীর মৃত্যুর সংবাদ শুনে ওসমান গা ঢাকা দিয়েছে।

এ ব্যাপারে হারবাং পুলিশ ফাঁড়ির আইসি পুলিশ পরিদর্শক তোফাজ্জল হোসেন জানান, স্বামী স্ত্রীর ঝগড়ার পর স্ত্রী মারা গেছে। হত্যার অভিযোগ উঠায় তছলিমা জন্নাতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত স্বামী গা-ঢাকা দেয়ায় আটাক করা সম্ভব হয়নি।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জহিরুল ইসলাম খান বলেন, হত্যার ঘটনা জানিনা। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

https://www.facebook.com/coxviewnews

Design BY Hostitbd.Com