Home / প্রচ্ছদ / চকরিয়ায় বাবাকে মারধর ও দোকান লুটের ঘটনায় ছেলে কারাগারে ঃ পুত্রবধূর জামিন

চকরিয়ায় বাবাকে মারধর ও দোকান লুটের ঘটনায় ছেলে কারাগারে ঃ পুত্রবধূর জামিন

Zelনিজস্ব প্রতিনিধি, চকরিয়া

বাবাকে মারধর করে জুয়েলারী দোকান থেকে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার লুটের ঘটনায় অবশেষে ছেলেকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। শিশু সন্তান থাকায় মানবিক কারণে জামিনে মুক্তি পেয়েছে পুত্রবধূ। বাবার দায়ের করা মামলায় ৯ আগস্ট রবিবার চকরিয়া সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির হয়ে জামিন প্রার্থনা করলে ছেলের জামিন নামঞ্জুর ও পুত্রবধূর জামিন হয়।

বাদী পক্ষের আইনজীবী আনোয়ারুল আজিম জানান, গতবছরের ৬ জুলাই চকরিয়া পৌরশহরস্থ সমবায় সমিতি মার্কেটের রুপনগর জুয়েলার্সে গিয়ে হিমাংশু বিমল দে প্রকাশ বেলা মহাজন (৬০)কে মারধর করে তার বড় ছেলে প্রদীপ কান্তি দাশ ও পুত্রবধূ নিভাশ্রী দাশ। এসময় দোকান থেকে নগদ সাড়ে ৪ লাখ টাকা ও ৯০ হাজার টাকা মূল্যের ২ ভরি ওজনের স্বর্ণের হার লুট করা হয়। এ ঘটনায় হিমাংশু বাদী হয়ে ছেলে ও পুত্রবধুকে আসামী করে ঘটনার ৪দিন পর ১০ জুলাই আদালতে নালিশী মামলা (নং-সিআর-৫৫৮/১৪) দায়ের করেন। এই অভিযোগটি বিজ্ঞ আদালত তদন্তপূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের জন্য দায়িত্ব দেন চকরিয়া পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর লক্ষণ কান্তি দাশকে। তিনি দীর্ঘ সময় তদন্ত করে ঘটনার সত্যতা প্রতিয়মান হয় মর্মে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন।

তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর আদালত আসামীদ্বয়ের বিরুদ্ধে সমন জারি করেন। ফলে রবিবার আসামী স্বামী-স্ত্রী কোর্ট সারেন্ডার করে জামিন প্রার্থনা করলে আদালত শুনানী শেষে শিশু সন্তান থাকায় নিভাশ্রী দাশের জামিন মঞ্জুর করলেও তার স্বামী প্রদীপ কান্তি দাশের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এতে বাবার দায়ের করা মামলায় ছেলেকে সন্ধ্যায় কক্সবাজার জেলা কারাগারে পাঠিয়েছে কোর্ট পুলিশ।

Leave a Reply

%d bloggers like this: