সোমবার, ১৫ অগাস্ট ২০২২, ১০:৪৩ অপরাহ্ন

চকরিয়ায় সরকারী অনুষ্ঠানের ছবি ফেসবুকে দিয়ে দাপটের প্রকাশ : প্রকাশ্যে বন্দুক প্রদর্শনকারী রাসেল চলছে বীরদর্পে!

নিজস্ব প্রতিনিধি; চকরিয়া :

ছাত্রলীগ নেতা দাবীদার রাসেল চন্দ্র সুশীল। বাড়ি কক্সবাজারের চকরিয়ার কৈয়ারবিল। পৌরশহরের বালিকা বিদ্যালয় সড়কে বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস। দিবারাত্রী আড্ডা দেয় রাস্তায়। কিশোর বয়সেই রোজগারের ধান্দায় নেমে আরো কয়েকজন কিশোর-তরুণকে বিপথগামী করছে। অবৈধ ধান্দা সফল করতে সংগ্রহ করেছে অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র। যেকোন ঘটনায় প্রদর্শন করে এই অস্ত্র। প্রকাশ্যে অস্ত্র উচিয়ে ভীতি সঞ্চার করলেও পুলিশ রহস্যজনক কারণে তার কেষাগ্রও স্পর্শ করেনা বলে অভিযোগ। তাই বেড়ে গেছে তার সাহস। সরকারী অনুষ্টানে প্রথম শ্রেনীর অফিসারদের সাথে ছবি তুলে ফেসবুকে ছেড়ে নিজের ক্ষমতার জোড় প্রদর্শন করতেও সাহস করে!

জানা গেছে, অস্ত্রবাজ ও অনৈতিক কাজে লিপ্ত রাসেল চন্দ্র সুশীলের ছাত্রলীগে কোন পোষ্ট-পদবী না থাকলেও নিজেকে ছাত্রলীগ নেতা দাবি করেন। গত ২ জানুয়ারী ইয়াবার টাকা ভাগাভাগি নিয়ে কক্সবাজারের চকরিয়া পৌরশহরের বালিকা বিদ্যালয় সড়কের হিন্দুপাড়ায় দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এসময় রাসেল নিজ বাড়ি থেকে বন্দুক উচিয়ে প্রকাশ্যে রাস্তায় বের হয় এবং এলাকায় এক প্রকার ভয়ভীতির সঞ্চার করে। এ ঘটনার পরদিন জাতীয় এবং আঞ্চলিকসহ বিভিন্ন পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়। এ ঘটনার ৬দিন অতিবাহিত হলেও তাকে খোঁজেওনি পুলিশ!

কিন্তু শনিবার সকাল ১১ টায় চকরিয়া কেন্দ্রীয় হরি মন্দিরে বই বিতরণ উৎসবে উপস্থিত হয়ে মঞ্চে উঠে অতিথিদের সাথে ছবি তুলে ফেসবুকে দেয় ওই রাসেল। এসময় মঞ্চে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো.মাহবুবউল করিম, উদ্বোধক ছিলেন জেলা পরিষদের নব-নির্বাচিত সদস্য জাহেদুল ইসলাম লিটু, চকরিয়া পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি তপন কান্তি দাশ, সাধারণ সম্পাদক বাবলা দেবনাথসহ প্রমুখ।

স্থানীয় কয়েকজন এলাকাবাসী জানান, রাসেল চন্দ্র সুশীল এই এলাকার ছেলে না। সে এ পাড়াতে বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করে। স্থানীয় কযেকজন হিন্দু নেতার আশ্রয়-প্রশয়ে সে দিনকে রাত রাতকে দিন করছে। সে এলাকার ছেলেদের নষ্ট করছে। অবৈধ অস্ত্র সংগ্রহ করে কয়েক সদস্যের সশস্ত্র গ্রুপ তৈরী করে অনৈতিক কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। এ অবৈধ অস্ত্র বন্ধুদের সাথে তুচ্ছ ঘটনাতেও প্রর্দশনের মাধ্যমে এলাকায় ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করছে। আর ওই অস্ত্র উদ্ধারে কোন উদ্যোগেই নেয় না পুলিশ। এতে রাসেলের ক্ষমতার শেকড় কতদূর বিস্তৃত প্রশ্ন উঠেছে।

ঘটনার ব্যাপারে জানতে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো.মাহবুবউল করিম বলেন, আসলে এব্যাপারে আমি অবগত নই। আমাকে উপজেলার পুজা কমিটির নেতৃবৃন্দরা বই বিতরণের জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। সেজন্য যাওয়া। আমি এব্যাপারে নেতৃবৃন্দদের সাথে আলাপ করবো।

https://www.facebook.com/coxviewnews

Design BY Hostitbd.Com