Home / প্রচ্ছদ / সাম্প্রতিক... / অপরাধ, আইন-আদালত / জেলার সর্বত্র ছেলে ধরা আতংক : ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের স্কুল উপস্থিতি কমছে : প্রশাসনিক উদ্যোগ জরুরী

জেলার সর্বত্র ছেলে ধরা আতংক : ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের স্কুল উপস্থিতি কমছে : প্রশাসনিক উদ্যোগ জরুরী

index

এম.আর মাহবুব; কক্সভিউ :

কক্সবাজারে সর্বত্র ছেলে ধরা আতংক বিরাজ করছে। ছেলে ধরা আতংকে ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের স্কুল উপস্থিতি হার আশংকাজনক হারে কমছে। পাশাপাশি জেলার স্কুল সমূহে ছাত্র/ছাত্রীদের সাথে উদ্বিগ্ন অভিভাবকরা ছুটে চলছে। শুধু তাই নয়-আতংকিত অভিভাবকরা সন্দেহজনক মাইক্রো/কার আরোহী দেখলেই হামলে পড়ছে।

৫ এপ্রিল রাত ৯টায় পি.এমখালীর তোতকখালীতে ছেলে ধরা সন্দেহে মোবাইল কোম্পানী রবির মাইক্রো আরোহী ৩ কর্মকর্তাকে মারধর করে থানা পুলিশে সোপর্দ করেছে। ভাংচুর করে নোহা মাইক্রোবাসটি। সূত্র জানায়-বিগত এক সপ্তাহ আগে উখিয়ার কোন এক জায়গা থেকে মায়ের হাত থেকে স্কুলগামী শিশু সন্তান ছেলে ধরা চক্র গাড়িতে করে নিয়ে যায়-কথাটি মুহুর্তে জেলাব্যাপী চাউর হয়ে যায়। পরে অবশ্য এ ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায়নি।

এরপরও থেমে থাকেনি-আজ এখানে-কাল ওখানে ছেলে ধরা চক্রের হাতে শিশু নিখোঁজ প্রপ্রগান্ডা চলতেই থাকে। লোকমুখে শুনা এসব তথ্যহীন কথা ডালপালা গজিয়ে জেলার সর্বত্র জেকে বসে। বিশেষ করে শিশু শিক্ষার্থীদের স্কুল সমূহের অভিভাবকদের মাঝে ছেলে ধরা আতংক বিশ্বাসে রূপ নেয়। আর যায় কোথা-প্রিয় সন্তানদের অজানা আশংকায় আতংকিত অভিভাবকরা ঝুঁকি নিয়ে পোষ্যদের স্কুলেই পাঠাচ্ছে না। গুজব আতংকে স্কুল উপস্থিতি হ্রাসের এ সময় যারা স্কুলে যাচ্ছে তাদের বেশীর ভাগই অভিাবক কিংবা পাহারাদার নিয়ে যাচ্ছে। বিশেষ করে জেলার কিন্ডার গার্টেন স্কুল সমূহের ছাত্র/ছাত্রী ও তাদের অভিভাবকদের মাঝে ছেলে ধরা আতংক গুজব নয়-সত্য হিসেবে ধরে নিচ্ছে। অথচ এর স্বপক্ষে বলার মতো কোন তথ্য নেই। সবই গুজব।

এদিকে কক্সবাজারের সচেতন মহল হঠাত্ করে গুজবে ডালপালা বিস্তার করা ছেলে ধরা আতংক কমাতে জেলার সর্বোচ্চ প্রশাসনের বাস্তব সম্মত পদক্ষেপ কামনা করেছেন।

%d bloggers like this: