Home / প্রচ্ছদ / সাম্প্রতিক... / জেলায় বিভিন্ন আদালতে বিচারক শূন্যতা, মামলা জট এবং বিচারপ্রার্থীর ভোগান্তি বিষয়ে

জেলায় বিভিন্ন আদালতে বিচারক শূন্যতা, মামলা জট এবং বিচারপ্রার্থীর ভোগান্তি বিষয়ে

কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির সংবাদ সম্মেলন

Distirct Bar Association

কক্সবাজার জেলায় দীর্ঘকাল বিভিন্ন আদালতে বিচারক শূন্যতাজনিত কারণে প্রচন্ড মামলা জট এবং বিচারপ্রার্থী জনসাধারণের ভোগান্তি বিষয়ে কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির ভূমিকা উপস্থাপনের জন্য ১৭মে সকাল সাড়ে ১০ টায় কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে এক সাংবাদিক সম্মেলন আয়োজন করা হয়। এসময় কক্সবাজারে কর্মরত জাতীয়, স্থানীয় ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন।
এসময় লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আ.জ.ম মঈন উদ্দীন অ্যাডভোকেট।
বিচারক সংকটের কারণে কক্সবাজার জেলায় বিচার কার্যক্রম মারাত্মক সংকটের সম্মুখীন। এ জেলায় বিভিন্ন কারণে মামলার সংখ্যা অস্বাভাবিক। প্রায় ৬৬০০০ মামলার ভারে জর্জরিত কক্সবাজারে জেলা ও দায়রা জজ সহ অধিনস্থ আদালতসমূহ। তত্মধ্যে পাঁচটি আদালতে বিচারকের পদ শূন্য আছে প্রায় তিন মাস ধরে। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে ৬৩৪৫টি বিচারাধীন মামলার বিপরীতে বিচারক আছেন মাত্র একজন। চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতসহ ১২টি ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে বিচারাধীন মামলা সংখ্যা ২৬৮৩৩টি। বিচারক শূন্য জেলা ও দায়রা জজ আদালতে বিচারাধীন মামলার সংখ্যা ৩০০০টি, অতিঃ জেলা জজ আদালতে মামলার সংখ্যা ৪১০০টি, যুগ্ম জেলা জজ ২য় আদালতে বিচারাধীন আছে প্রায় ৬৩০৭টি মামলা। বিচারক শূন্য যুগ্ম জেলা জজ ১ম আদালতে মামলার সংখ্যা প্রায় ৬০০০টি। বিচারক শূন্য টেকনাফ সহকারি জজ আদালতে মামলার সংখ্যা প্রায় ১১৫০ এবং কুতুবদিয়া সহকারী জজ আদালতে রয়েছে ১৭২৬টি মামলা। বিচারক শূন্য আদালত সমূহে বিচারাধীন মামলার সংখ্যা ১২৭৩৪টি। আদালতের সংখ্যা বাড়ানো অত্যন্ত জরুরী। কিন্তু বিদ্যমান আদালতেই মাসের পর মাস বিচারক না থাকায় বেড়ে চলছে মামলার জট।
বিচারাঙ্গনের উদ্ভুত সমস্যা নিয়ে কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির কার্যনির্বাহী পরিষদের সিদ্ধান্ত ও প্রস্তাবনা ইতোমধ্যে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রেরণ করা হয়েছে। জেলা ও দায়রা জজ আদালত, যুগ্ম জেলা দায়রা ও জজ আদালত, কুতুবদিয়া সহকারী জজ আদালত, উখিয়া সহকারী জজ আদালত, টেকনাফ সহকারী জজ আদালতে বিচারকের পদ শূন্য থাকার বিষয়ে জেলা আইনজীবী সমিতির পক্ষে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের স্মারকযুক্ত গত ০৭/০৩/২০১৬ইং তারিখের ২০১৬/৩ (০৩) নম্বর স্মারকযুক্ত পত্র গত ২১/০৪/২০১৬ইং তারিখের ২০১৬/৪ (২৪) নম্বর স্মারকযুক্ত পত্র আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় এবং মহামান্য বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্ট বরাবরে পাঠানো হয়েছে। এছাড়াও কক্সবাজারে বিদ্যামান আদালতের অতিরিক্ত একটি অতিরিক্ত জেলা জজ আদালত, দুইটি যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ আদালত, একটি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল, একটি শিশু আদালত, বিদ্যুৎ আদালত, পরিবেশ আদালত, অর্থ ঋণ আদালত, শ্রম আদালত স্থাপনের জন্য গত ০৩/০৪/২০১৬ইং তারিখের ২০১৬/৪(১৩) নম্বর স্মারকযুক্ত পত্র মূলে আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় ও মাননীয় সুপ্রীম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল বরাবরে আবেদন জানানো হয়েছে।
কক্সবাজারের আদালত সমূহে বিচারকের পদ শূন্যতা ও আদালতের সংখ্যা অপ্রতুল হওয়ার বিষয়ে কক্সবাজারের মাননীয় সংসদ সদস্য কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ইতোমধ্যে মাননীয় আইনমন্ত্রী, আইন সচিব ও মহামান্য সুপ্রীম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল এর সাথে সাক্ষাত করে কক্সবাজারের বিচারাঙ্গনের সমস্যা এবং বিচারপ্রার্থী জনসাধারণের দুর্ভোগের চিত্র তুলে ধরেছেন। এমতাবস্থায় আইন মন্ত্রণালয় ও মহামান্য সুপ্রীম কোর্ট ঐক্যমত্যের ভিত্তিতে কক্সবাজারের বিচারাঙ্গনের শূন্যপদ পূরণে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির পক্ষে আকুল আবেদন জানাচ্ছি।
এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট আবুল কালাম ছিদ্দিকী, সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর, অ্যাডভোকেট আমজাদ হোসেন, সিনিয়র সহসভাপতি অ্যাডভোকেট বদিউল আলম সিকদার, অ্যাডভোকেট এস.এম নূরুল ইসলাম, সহ-সাধারণ সম্পাদক (হিসাব) অ্যাডভোকেট এ.কে ফিরোজ আহমদ, সহ-সাধারণ সম্পাদক (সাধারণ) অ্যাডভোকেট এ.কে ফজলুল হক চৌধুরী, পাঠাগার সম্পাদক মোহাম্মদ মিজানুর রাশেদ, আপ্যায়ন ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ শামশুল হক, কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য অ্যাডভোকেট এ.কে.এম এরশাদ উল­াহ প্রমুখ।

Leave a Reply