Home / প্রচ্ছদ / জেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলনে আশরাফ পৃথিবীতে কোন সংগঠন আওয়ামীলীগের মতো রক্ত দেয়নি

জেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলনে আশরাফ পৃথিবীতে কোন সংগঠন আওয়ামীলীগের মতো রক্ত দেয়নি

Ashrafশহীদুল্লাহ কায়সার; কক্সভিউ:

জনপ্রশাসন মন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ’র সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন, পৃথিবীতে এমন কোন সংগঠন নেই। যে সংগঠন আওয়ামী লীগে’র মতো এতো রক্ত দিয়েছে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার পর জাতীয় চার নেতা বিশ্বাস ঘাতকতা করেন নাই। জীবন দিয়ে তাঁরা তার প্রমাণ দিয়েছেন। তিনি ৩১ জানুয়ারি শহরের পাবলিক লাইব্রেরির শহীদ দৌলত ময়দানে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগ’র সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। উন্নয়ন থেকে শুরু করে খেলাধুলা পর্যন্ত যে অর্জন তার সব কিছুই এনেছে আওয়ামীলীগ’র আমলে। দীর্ঘদিন ধরে জেলা আওয়ামীলীগ’র সম্মেলন না হওয়ার সমালোচনা করে সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেন, সম্মেলন না হওয়া ভালো কোন লক্ষণ নয়। এ সময় সেনা শাসনের কবলে পড়ে অনেক জেলায় সম্মেলন সম্পন্ন করা সম্ভব হয়নি বলেও তিনি তার বক্তব্যে উল্লেখ করেন। সম্মেলনের উদ্বোধন করতে গিয়ে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ’র প্রেসিডিয়াম সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেন, কক্সবাজারের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর সুনজর রয়েছে। তাঁর একান্ত আগ্রহেই মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ীতে ১০ হাজার মেগাওয়াট ক্ষমতা সম্পন্ন বিদ্যুত্ কেন্দ্র স্থাপন করা হচ্ছে। কক্সবাজার বিমানবন্দরকে আন্তর্জাতিক মানে রূপান্তর করণের কাজ ইতোমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে।

পরিকল্পিত নগরায়নের জন্য গঠন করা হবে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (কউক) এটি হবে দেশের পঞ্চম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ। অনেক কঠিন পথ অতিক্রম করে, জ্বালাও পোড়াও থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশকে অর্থনৈতিকভাবে উন্নয়নের পথে এগিয়ে নিচ্ছে বলেও তিনি তাঁর বক্তব্যে উল্লেখ করেন। এর আগে সকাল সোয়া ১১ টায় জাতীয় সঙ্গীতের তালে তালে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের পর প্রধান ধর্মগ্রন্থ পাঠের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। এরপর জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, জাতীয় চার নেতা সহ স্বাধীনতা থেকে মহান স্বাধীনতা আন্দোলন, বিভিন্ন গণতান্ত্রিক আন্দোলন সংগ্রামে নিহত এবং জেলা আওয়ামীলীগ’র প্রয়াত সভাপতি এ.কে.এম মোজাম্মেল হক সহ প্রয়াত আওয়ামীলীগ নেতা কর্মী ও সমর্থকদের স্মরণে শোক প্রস্তাব পাঠ করেন জেলা আওয়ামী লীগ’র দপ্তর সম্পাদক এডভোকেট বদিউল আলম সিকদার। জেলা আওয়ামীলীগ’র ভারপ্রাপ্ত এডভোকেট একে আহমদ হোসেন’র সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সালাহ উদ্দিন আহমদ সিআইপি’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে আওয়ামীলীগ’র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবুল আলম হানিফ বলেন, ২০০১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় এসে হাওয়া ভবনে বসে তারেক জিয়া দেশে বিকল্প সরকার গঠন করেছিলেন। ওই ভবন থেকেই করা হতো দেশের বড় বড় দুর্নীতি। পাকিস্তানে বসে খালেদা জিয়া বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা ব্যাহত করতে চাইছে দাবি করে তিনি বলেন, এদেশের স্বাধীনতা নিয়ে ছিনিমিনি খেলার ষড়যন্ত্র আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা বরদাশত করবে না বলেও তিনি তাঁর বক্তব্যে উল্লেখ করেন।

প্রধান বক্তার বক্তব্যে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ’র সাংগঠনিক সম্পাদক বীর বাহাদুর এমপি বলেন, সংগঠন শক্তিশালী হলে দেশ শক্তিশালী হবে। বার বার ক্ষমতায় আসবে আওয়ামীলীগ। কোন ব্যক্তির নামে শ্লোগান না ধরতে নেতাকর্মীদের আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, শেখ হাসিনার শ্লোগান ছাড়া অন্য কোন শ্লোগান চলবে না। আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ’র শ্রম বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা: বদিউজ্জামান ডাবলু, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এড. আফজাল হোসেন, সদস্য সুজিত রায় নন্দী, আমিনুল ইসলাম আমিন, জেলা নেতাদের মধ্যে তিন সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদি, সাইমুম সরওয়ার কমল, আশেক উল্লাহ রফিক, মোস্তাক আহমদ চৌধুরী, অধ্যাপক মো: আলী, এথিন রাখাইন, কানিজ ফাতেমা মোস্তাক প্রমুখ এবং কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক নেতাদের মধ্যে মাহফুজুল হায়দার চৌধুরী রোটন, শাহজাদা মহিউদ্দিন, প্রশান্ত ভুষণ বড়ুয়া প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

%d bloggers like this: