Home / প্রচ্ছদ / টেকনাফে বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটার হালনাগাদ শুরু : সুপারভাইজারসহ ৮৬ জন তথ্য সংগ্রহকারী মাঠে

টেকনাফে বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটার হালনাগাদ শুরু : সুপারভাইজারসহ ৮৬ জন তথ্য সংগ্রহকারী মাঠে

Electionগিয়াস উদ্দিন ভুলু, টেকনাফ :

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় ভোটার হালনাগাদ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ১৬ আগষ্ট রবিবার সকাল থেকে তথ্য সংগ্রহকারীগণ বাড়ি গিয়ে তথ্য সংগ্রহের কাজ শুরু করছেন। তা আগামী ৩০ আগষ্ট পর্যন্ত চলবে।

তবে উপজেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, এ ভোটার হালনাগাদ কার্যক্রমে ভোটার সংখ্যা অনুপাতে শতকরা ৭ ভাগ ফরম বিতরণ করা হয়েছে। যদি তথ্য সংগ্রহকারীদের ফরম প্রয়োজন হলে সুপারভাইজারদের জানাবে সুপারভাইজাররা নির্বাচন কার্যালয়ে ফরমের ডিমান্ড জানালে তা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে ১১ আগষ্ট উপজেলা নির্বাচন কার্যালয়ের উদ্যোগে ১৬ জন সুপারভাইজার ও ৭০ জন তথ্য সংগ্রহকারীকে দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়।

উপজেলার ছয়টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় ৮৬ জন সুপারভাইজার ও তথ্য সংগ্রহকারী দায়িত্ব পালন করছেন। এতে সুপারভাইজাররা হল, হোয়াইক্যং ইউনিয়নে কানজরপাড়া উচচ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম, নয়াবাজার উচচ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রুপন কন্তি বড়ুয়া, একই বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক বিশ্বজিৎ মজুমদার। হ্নীলা ইউনিয়নে নয়াবাজার উচচ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক শামশুল আলম হায়দরী, নয়াবাজার উচচ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক বিপুল পাল, হ্নীলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক সুক্লব পাল। টেকনাফ সদর ইউনিয়নে টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক বাশিরাম দে, এজাহার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক আজিজুল হক। সাবরাং ইউনিয়ে সাবরাং উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক প্রবির কান্তি মজুমদার, একই স্কুলের সিনিয়র শিক্ষক আনিসুর রহমান ও শাহপরীর দ্বীপ উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক শামশুল আলম। বাহারছড়া ইউনিয়নে শামলাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সুধান্ত কুমার দাস, উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা সরওয়ার কাদের জয়। সেন্টমার্টিনদ্বীপ ইউনিয়নে সেন্টমার্টিন বিএন ইসলামী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক শাহ জালাল। পৌরসভায় এজাহার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক জয়নাল আবেদীন ও টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক দীলিপ কুমার দাস।

ওই সময় উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম জানান, ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্তির জন্য পিতা-মাতা, ভাই-বোন, চাচা-ফুফুর আইডি কার্ডের ফটোকপি, পিতা-মাতা মৃত হলে মৃত্যু সনদের ফটোকপি, স্ত্রী/স্বামীর আইডি কার্ডের ফটোকপি, জন্ম সনদের ফটোকপি, জাতীয়তা সনদের ফটোকপি, পৌরকর/ইউনিয়ন পরিষদের খাজনার ফটোকপি, বিদেশ ফেরৎ হলে বৈধ পাসপোর্টের ফটোকপি, জমির খতিয়ানের ফটোকপি, নিকট আত্মীয়ের আইডি কার্ডের ফটোকপি, সর্বশেষ দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সনদের ফটোকপি ও বয়স্ক আবেদনকারীদের বাদ পড়ার কারণ উল্লেখ করতঃ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের প্রত্যয়ন পত্র ইত্যাদি প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: