Home / প্রচ্ছদ / সাম্প্রতিক... / অপরাধ, আইন-আদালত / টেকনাফে বিজিবির পৃথক অভিযান ইয়াবাসহ আটক-৩

টেকনাফে বিজিবির পৃথক অভিযান ইয়াবাসহ আটক-৩

yaba-

গিয়াস উদ্দিন ভুলু; টেকনাফ:

টেকনাফে পৃথক অভিযানে ২৪ হাজার ৪৮৮ পিস ইয়াবা বড়িসহ দুই কিশোর ও এক নারী পাচারকারীকে আটক করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

শুক্রবার হ্নীলা ইউনিয়নের মোচনি এলাকা সংলগ্ন নাফ নদীর কিনারায় অভিযান চালিয়ে পাচারকাজে ব্যবহৃত কাঠের একটি নৌকা জব্দ করা হয়। পরে নৌকাটিতে তল্লাশি চালিয়ে ইয়াবাগুলো পাওয়া যায়।

আটক দুই কিশোর হলো, টেকনাফ হ্নীলা নয়াপাড়া এলাকার মোঃ হোসনের ছেলে আনোয়ার হোসেন সাদেক (১৯) ও একই এলাকার আবুল হোসনের ছেলে রজব মিয়া (১৯)।

অপরদিকে শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে দমদমিয়া বিওপি চৌকির সুবেদার বাচ্চু মোল্লার নেতৃত্বে জওয়ানরা চেকপোষ্টে কক্সবাজারগামী একটি গাড়ী তল্লাশিকালে ওই নারীর শরীরে অভিনব কায়দায় লুকানো অবস্থায় ৪৮৮ পিস ইয়াবাসহ জোসনা বেগম (৪০) নামে এক নারীকে আটক করা হয়েছে। আটক নারীর বাড়ী রাজবাড়ী জেলার আল্লাদিপুর এলাকার আব্দুল করিমের স্ত্রী।

২ বর্ডার গার্ড ব্যাটলিয়ান অধিনায়ক লে: কর্ণেল মোঃ আবু জার আল জাহিদ জানান, মিয়ানমার থেকে ইয়াবার একটি চালান আসছে এমন তথ্যের ভিত্তিতে মোচনি এলাকা সংলগ্ন নাফ নদীর কিনারায় প্যারাবনে অবস্থান নেয়। এসময় একটি নৌকা মিয়ানমার থেকে নাফ নদী পাড় হয়ে বাংলাদেশের জলসীমায় প্রবেশ করে। মোচনি এলাকার কাছাকাছি পৌঁছলে বিজিবির সদস্যরা নৌকাটিকে থামার সংকেত দিলে তা অম্যান্য করে মোচনির বেড়িবাঁধ দিয়ে পালানোর সময় দুজনকে আটক করা হয়। পরে নৌকাটিতে তল­াশি চালিয়ে জালে মোড়ানো একটি পলিথিন ব্যাগের ভেতর থেকে ২৪ হাজার পিস ইয়াবা বড়ি পাওয়া যায়, যার আনুমানিক দাম ৭৪ লাখ টাকা।

এ প্রসঙ্গে টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল মজিদ জানান, উদ্ধার ইয়াবাসহ আটক যুবকদের থানায় হস্তান্তর করে নয়াপাড়া শরণার্থী ক্যাম্পের সি ব্লকের ২ নং রুমের ৮১৩ নং সাইডের ফজল আহাম্মদের ছেলে ৬১০৩২ নং এমআরসি মোঃ হারুন (৩০)কে পলাতক আসামী করে মাদক আইনে মামলা করা হচেছ বলে জানিয়েছেন। তাদেরকে শনিবার সকালে কক্সবাজার আদালতে পাঠানো হবে।

%d bloggers like this: