শনিবার, ২০ অগাস্ট ২০২২, ০৮:৪৫ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
বিএনপির জন্য অপেক্ষা করবে নির্বাচন কমিশন বঙ্গোপসাগরে ট্রলার ডুবি, ১৭ জেলে উদ্ধার সুদানে বন্যায় ৭৭ জনের মৃত্যু বিশ্বের প্রথম ২০০ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা আনল মটোরোলা  লামায় গৃহবধূর মৃত্যু নিয়ে ধূম্রজাল লামায় বিদ্যুৎ যাচ্ছে অটোরিকশা-টমটমের পেটে লামায় ৬৯ লিটার চোলাই মদসহ ব্যবসায়ী আটক ১ ঈদগড়ের চালক শহিদুল হত্যাকান্ডে আটক আসামীদের জামিন না মঞ্জুর এবং পলাতক আসামীদের গ্রেফতারের দাবী জানিয়েছেন অসহায় পিতা শুভ জন্মাষ্টমী আজ সারা দেশে সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে রামুতে আ’লীগের সমাবেশ অনুষ্ঠিত দেশব্যাপী সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে ঈদগাঁওতে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ

থেমে নেই রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ : সীমান্তে বিজিবি’র কঠোর নিরাপত্তা

BGB - Rafiq - Lama 18-10-2015 (news & 1pic) f2

হুমায়ুন কবির জুশান, উখিয়া :

মিয়ানমারের মংন্ডু রাখাইন প্রদেশে বসবাসরত রোহিঙ্গাদের উপর দমন, নিপীড়ন, অব্যাহত রয়েছে। আশ্রয়হীন হাজার হাজার রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ-শিশু এপারে চলে আসার জন্য সীমান্তের বিভিন্ন পয়েন্টে উৎপেতে অপেক্ষা করছে। এপারে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ ঠেকাতে বিজিবি’র কঠোর নিরাপত্তা বে ষ্টনী থাকার পরও থেমে নেই রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ। গত ২ সপ্তাহে উখিয়ার কুতুপালং শরণার্থী ক্যাম্প ও তৎসংলগ্ন রোহিঙ্গা বস্তিতে কমপক্ষে ১০ হাজার অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ-শিশু আশ্রয় নিয়েছে বলে রোহিঙ্গা ক্যাম্প সূত্রে জানা গেছে।

৯ অক্টোবর মিয়ানমারের মংন্ডুর পার্শ্ববর্তী এলাকায় ৩টি সেনা ক্যাম্পে সশস্ত্র হামলায় ৯ জন সেনা সদস্য নিহত হওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে সে দেশের সেনাবাহিনী, পুলিশ ও রাখাইন জনগোষ্ঠি রোহিঙ্গাদের উপর নির্যাতন শুরু করে। কুতুপালং শরণার্থী ক্যাম্পে বসবাসরত ফয়সাল আনোয়ার জানান, ১১ নভেম্বর হতে এ পর্যন্ত মংন্ডুর নাইচাপ্রু, হাস্যেরপাড়া, সাতগরিয়া পাড়া, খেয়ারীপ্রাং, ওয়াবেক, নাকপুরা, লোদাইং, কাউয়ারবিল, ধুংছেপাড়া, বড় গৌজবিল, ছোট গৌজবিলসহ প্রায় ১৮টি গ্রামে লুটপাট, ধর্ষণ, খুন, নির্যাতন চালিয়ে ঘরবাড়ি আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে।

রোববার সকালে থাইংখালী থেকে কুতুপালং ঘুরে দেখা যায়, বিজিবি সদস্যরা সড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে চেকপোষ্ট বসিয়ে যাত্রীবাহি গাড়ীগুলো তল্লাশী চালিয়ে দেখছে রোহিঙ্গা আছে কিনা। কুতুপালং রোহিঙ্গা বস্তি ম্যানেজম্যান্ট কমিটির সভাপতি আবু ছিদ্দিক জানান, বিজিবি-পুলিশের সর্তক অবস্থানের পরও প্রতিদিন অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গা কুতুপালং বস্তি ও শরণার্থী শিবিরে ঢুকছে। সে জানায়, এ পর্যন্ত প্রায় ১০ হাজার অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ-শিশু এখানে আশ্রয় নিয়েছে।

সে আরো জানায়, এসব রোহিঙ্গারা এক কাপড়ে চলে আসার কারণে প্রচন্ড শীতের রাতে অমানবিক সময় পার করছে। আশ্রীতা অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গারা কারো না কারো আত্মীয় স্বজন হওয়ার সুবাদে তাদের অনুপ্রবেশের খবর অনেকটা ধরাছোঁয়ার বাইরে থেকে যাচ্ছে বলে কুতুপালং ক্যাম্প ইনচার্জ শাকিল আরমান জানিয়েছেন। উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আবুল খায়ের জানান, রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ প্রতিরোধের পাশাপাশি এখানকার বৌদ্ধ মন্দির ও বৌদ্ধ পল্লীতে পুলিশি নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

কক্সবাজার ৩৪ বিজিবি’র অধিনায়ক লে.কর্ণেল ইমরান উল্লাহ সরকার জানান, সীমান্তে বিজিবি সদস্যদের কড়া নিরাপত্তার কারণে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ কমেছে। তবে রাতের আধাঁরে সীমান্তের বিভিন্ন ফাঁক ফোকড় দিয়ে কিছু কিছু রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ করে কুতুপালং বস্তিতে আশ্রয় নিচ্ছে বলে শুনা যাচ্ছে। তিনি আরো বলেন, রোববার ৫ জন অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গাকে মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

https://www.facebook.com/coxview

Design BY Hostitbd.Com