Home / প্রচ্ছদ / সাম্প্রতিক... / জাতীয় / নির্দোষ বন্দিদের আইনি সহায়তা দেওয়ার নির্দেশ

নির্দোষ বন্দিদের আইনি সহায়তা দেওয়ার নির্দেশ

Shek Hasina

যারা বিনা কারণে জেলে বন্দি আছেন, তাদের আইনি সহায়তা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ নির্দেশ দেন।

অনুষ্ঠানে লিগ্যাল এইড কল সেন্টার জাতীয় হেল্পলাইনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। এর ফলে ১৬৪৩০ নম্বরে ডায়াল করে বিনা মূল্যে পাওয়া যাবে যেকোনো ধরনের আইনি পরামর্শ।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এমন অনেক মানুষ আছেন, যারা বিচার পান না। অনেকে মিথ্যা মামলায় বছরের পর বছর ধরে কারাগারে বন্দি আছেন। তারা বা তাদের পরিবারের সদস্যরা জানেনই না যে, কীভাবে এ দুঃসহ যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়, কীভাবে আইনগত সহায়তা পেতে হয়। তাদের কল্যাণেই জাতীয় আইনগত সহায়তা কর্মসূচি চালু করেছে সরকার। বিনা বিচারে এভাবে যারা দীর্ঘদিন ধরে কারাগারে বন্দি রয়েছেন, তাদের তালিকা করে আইনি সহায়তা দিতে হবে, তারা যেন বিচার পান।

শেখ হাসিনা বলেন, ’৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধুসহ আমাদের পরিবারের ১৮ জন সদস্যকে হত্যা করা হয়। এরপর এ হত্যাকাণ্ডের যাতে বিচার না হয় এ জন্য একটি অধ্যাদেশ জারি করা হয়। আমাদের বিচার চাওয়ার অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হয়। এরপর আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় এসে সেই অধ্যাদেশ বাতিল করে ওই বর্বর হত্যাকাণ্ডের বিচার করে।

তিনি বলেন, ‘আজ কোনো ঘটনা ঘটলে মানুষ বিচার চায়। কিন্তু আমাদের সময় সেই সুযোগ ছিল না।’

তিনি বলেন, সংবিধান অনুযায়ী বিচার চাওয়ার অধিকার সবার। সরকার মানুষের মৌলিক অধিকার পূরণ করছে। এ দেশে একটি মানুষ ও গৃহহীন থাকবে না।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, শুধু রাজধানীভিত্তিক নয়, তৃণমূল পর্যায়ে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। সরকারের নানা পদক্ষেপের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, প্রতিবন্ধীদের জন্য নানামুখী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া শিক্ষা, চিকিত্সা খাতের উন্নয়নে নানা পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। বিধবা ভাতা, বয়স্ক ভাতাসহ বিভিন্ন ধরনের ভাতা প্রদান করা হয়।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমরা আমাদের নির্বাচনী ইশতেহারে স্বাধীন নিরপেক্ষ আধুনিক বিচার বিভাগ গড়ে তোলার অঙ্গীকার করেছিলাম। আমরা তা করেছি। এখন মামলার জোট নিষ্পত্তি করা প্রয়োজন। এ জন্য বিচারকদের নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। এ ছাড়া জেলা পর্যায়ে আদালতের নতুন ভবন তৈরি করা হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে সব প্রতিষ্ঠানের উন্নতি হয়। দেশ অর্থনৈতিকভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। আমরা নিম্ন-মধ্যম আয়ের দেশে থাকব না। আমরা অন্য দেশ থেকে ঋণ নিয়ে সুদসহ তা পরিশোধ করি। কিন্তু কারো কাছে হাত পাতি না। দেশ বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে চলবে।’

সূত্র: রাইজিংবিডিডটকম,ডেস্ক।

%d bloggers like this: