Home / প্রচ্ছদ / পেকুয়ায় জমি দখলের পাঁয়তারায় প্রতিকার পাচ্ছেনা প্রতিবন্ধী নুরুল হোছাইন!

পেকুয়ায় জমি দখলের পাঁয়তারায় প্রতিকার পাচ্ছেনা প্রতিবন্ধী নুরুল হোছাইন!

Shagir -9-1-2016 (news & 2pic) f1 (2)এস.এম.ছগির আহমদ আজগরী; পেকুয়া :

কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলায় সদর ইউনিয়নের মৌলভী পাড়া গ্রামের নুরুল হোছাইন ও মমতাজ বেগম নামের দুই অসহায় প্রতিবন্ধী ভাই-বোনের ৮০শতক জমি দীর্ঘদিন ধরে স্থানীয় প্রভাবশালী মহলের জবর দখলের পাঁয়তারার গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ নিয়ে প্রতিবন্ধী নুরুল হোছাইন সম্প্রতি প্রশাসনের বিভিন্ন দফতরে ওই প্রভাবশালী মহলের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করলেও কোন ধরনের প্রতিকার মিলছেনা বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে।

প্রতিবন্ধী নুরুল হোছাইন এ প্রতিবেদকের কাছে অভিযোগ করেছেন, প্রভাবশালীরা প্রতিনিয়তই তারা প্রতিবন্ধী ভাইবোনকে নানাভাবে হুমকি ধমকি দিচ্ছে, জমি থেকে উচ্ছেদের চেষ্টা চালাচ্ছেন। এ নিয়ে প্রশাসনের বিভিন্ন দফতরে প্রভাবশালীদের নামোল্লেখ করে ন্যায় বিচারের আশায় অভিযোগ দায়ের করলেও কোন ধরনের প্রতিকারের আশার আলো দেখতে পাচ্ছেন না।

জানা গেছে, প্রতিবন্ধী নুরুল হো ছাইন এ ঘটনায় কক্সবাজার জেলা পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগটি আমলে জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয় সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) মোঃ মাসুদ আলমকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। এছাড়াও গত বছরের ১৪ ডিসেম্বর প্রতিবন্ধী নুরুল হোছাইন স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ মুহাম্মদ ইলিয়াছ এম.পি’র সুপারিশসহ পেকুয়ার ইউএনও’র কাছে আরো একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগের সুত্রে জানা গেছে, পেকুয়া সদর ইউনিয়নের মৌলভী পাড়া গ্রামের মাষ্টার নুরুল ইসলামের ৪পুত্র আহসান উল্লাহ, আমান উল্লাহ, আতা উল্লাহ ও আলিম উল্লাহ দীর্ঘদিন ধরে পেকুয়া সদর ইউনিয়নের সাবেক গুলদি গ্রামের মৃত সাঁচির পুত্র প্রতিবন্ধী নুরুল হোছাইন ও তার বোন মমতাজ বেগমের ৮০ শতক জমি জবর দখলের পাঁয়তারায় লিপ্ত হন।

জানা গেছে, প্রতিবন্ধী ভাই-বোনের আবেদনের প্রেক্ষিতে ২০১৪সালের ৪ফেব্রুয়ারী ৩১০নম্বর দলিলমূলে পেকুয়া মৌজার বি.এস ১৫৬৭/খ দাগের ৪০শতক জমি ও ২০১৪ সালের ১৯ নভেম্বর তার বোন মমতাজ বেগমকে ৫০১০ খতিয়ানের ৪০ শতক জায়গা সরকার তাদের অনুকূলে বন্দোবস্তি প্রদান করেন। এরপর ওই জমির সরকারী রাজস্ব পরিশোধ করে দাখিলা গ্রহণ করেন প্রতিবন্ধী ভাই-বোন। পরে, সরকার তাদের জমির দখল স্বত্বও বুঝিয়ে দেন।

এদিকে সরকার কর্তৃক জমি বন্দোবস্তি দখল বুঝে পাওয়ার পর থেকে ওই জমির উপর লোলুপ দৃষ্টি পড়ে স্থানীয় একটি প্রভাবশালী পরিবারেরর লোকজনদের। প্রতিনিয়তই তারা প্রতিবন্ধীদের জমি জবর দখলের জন্য অব্যাহতভাবে পাঁয়তারাসহ নানান ধরনের ষড়যন্ত্র শুরু করেন।

প্রতিবন্ধী নুরুল হোছাইন জানান, আমরা প্রতিবন্ধী হওয়ায় সরকার আমাদের জমি বন্দোবস্তি দিয়েছেন। এটা আমাদের ন্যায্য অধিকার। আর এখন প্রভাবশালীরা আমাদের জমি দখলের জন্য অন্যায়ভাবে চেষ্টা চালাচ্ছেন। গত কয়েক দিন ধরে তারা আমাদের জমিতে নির্মান সামগ্রী এনে মজুদ করেছে এবং জমির উপর অবৈধভাবে স্থাপনা নির্মাণের জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন। প্রভাবশালীদের বিরুদ্ধে পুলিশ সুপার, ইউএনওসহ বিভিন্ন দফতরে অভিযোগ দিলেও তারা তার কোন তোয়াক্কাই করছেনা। প্রশাসনের দফতরে অভিযোগ দায়েরের পর থেকে তারা আরো বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।

অভিযোগের ব্যাপারে জানতে অভিযুক্ত আহসান উল্লাহ’র মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ বিষয়টি সম্পর্কে পেকুয়ায় কর্মরত কয়েকজন সংবাদকর্মীর নামোল্লেখ করে তাদের কাছ থেকে জেনে নেয়ার পরামর্শ দিয়ে এ প্রতিবেদকের সাথে কোন ধরনের কথা বলতে রাজি না হয়ে মোবাইলের লাইন কেটে দেন।

এদিকে প্রতিবন্ধী নুরুল হোছাইন ও মমতাজ বেগম তাদের জমিতে প্রভাবশালীদের দখল ঠেকাতে ও এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় আইনগত সহায়তা পেতে জরুরী ভিত্তিতে সরকারের প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি ও হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

Leave a Reply