Home / প্রচ্ছদ / পেকুয়ায় দূর্গত এলাকা পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক

পেকুয়ায় দূর্গত এলাকা পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক

Coxsbazar DCপেকুয়া প্রতিনিধি : কক্সবাজার জেলার উপকূলীয় উপজেলা পেকুয়ায় বন্যা দুর্গত এলাকা পরিদর্শন করেছেন জেলা প্রশাসক মোঃ আলী হোসেন। এ সময় তিনি উজানটিয়া ইউনিয়নসহ পেকুয়ার বিভিন্ন ইউনিয়নের বিলীন হওয়া ও ঝুঁকিপূর্ণ বেড়িবাঁধ দ্রুত সংস্কারের আশ্বস্থ করেছেন। ৩ জুলাই শুক্রবার দুপুরে উপজেলার বন্যা দূর্গত উজানটিয়া ও সদর ইউনিয়ন পরিদর্শন করেছেন। এ সময় তিনি দুপুর ২টার দিকে উজানটিয়া ইউনিয়নের বিধ্বস্ত বেড়িবাঁধ পরিদর্শনের জন্য যান। তবে প্রচন্ড বৃষ্টির কারনে নৌকা যোগে বেড়িবাঁধের ভাঙ্গন অংশ পরিদর্শনে যাওয়া সম্ভব হয়নি। মধ্যম উজানটিয়ার ষাট দুনিয়া পাড়ার ভেলুয়ার পাড়া রাস্তার মাথায় পৌঁছলে জেলা প্রশাসক মোঃ আলী হোসেন ওই এলাকার পরিদর্শনের খবর জানাজানি হলে শত শত লোকজন বৃষ্টি উপেক্ষা করে ওই স্থানে জড়ো হন। এ সময় বেড়িবাঁধের ভাঙ্গন কবলিত অংশ দিয়ে জোয়ারের পানি প্রবেশ করা প্লাবিত এলাকার লোকজনকে তিনি আশ্বস্থ করেছেন। খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে উজানটিয়ার জন দূর্ভোগ লাঘবের জন্য ওই এলাকার বেড়িবাঁধ নির্মাণ করার আশ্বস্থ করেন। এ সময় এক অনির্ধারিত জনতার সমাবেশে মিলিত হন জেলা প্রশাসক। এ সময় সাংবাদিকদের সাথে পরিদর্শনে যান কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক সালাহ উদ্দিন আহমদ সিআইপি, চকরিয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাফর আলম, পেকুয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাফায়েত আজিজ রাজু, ইউএনও মোঃ মারুফুর রশিদ খান, ওসি মোঃ আবদুর রকিব, ভাইস চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান মঞ্জু, উজানটিয়ার চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম চৌধুরী সহ স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতারা।

এদিকে পেকুয়া বন্যা পরিস্থিতি ও বেড়িবাঁধ এর বিলীন হওয়া অংশে দ্রুত সংস্কারের জন্য করনীয় বিষয় নিয়ে জেলা প্রশাসক পেকুয়ার জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গকে নিয়ে ওই দিন দুপুরে উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে এক মতবিনিময় সভায় মিলিত হন। উজানটিয়ার সচেতন মহল মনে করেন, এখনো পর্যন্ত সরকারের উচ্চ পর্যায়ের কোন ব্যক্তিরা বেড়িবাধের ভাঙ্গা অংশ সরজমিনে পরিদর্শনে যেতে পারেননি। ৩ জুলাই জেলা প্রশাসক যেতে গিয়ে প্রবল পানির স্রোত ও অতিবৃষ্টির কারণে যেতে পারেননি।

এ ব্যাপারে উজানটিয়া ইউপি চেয়ারম্যান এম. শহিদুল ইসলাম বলেন, আমার ইউনিয়নে বর্তমান অবস্থা খুবই সংকটপর্ণ। হাজার হাজার মানুষ পানিবন্দী। জেলা প্রসাশক মহোদয় ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দরা এসেছেন বেড়িবাঁধ দ্রুত সংস্কারের আশ্বস্ত করায় আমার ইউনিয়নের ২০হাজার মানুষ আনন্দিত হয়েছেন।

%d bloggers like this: