Home / প্রচ্ছদ / সাম্প্রতিক... / বদরখালী সমবায় কৃষি ও উপনিবেশ সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন

বদরখালী সমবায় কৃষি ও উপনিবেশ সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন

mukul-chakaria-05-10-2016

মুকুল কান্তি দাশ, চকরিয়া :

দক্ষিণ এশিয়ার বৃহত্তম সমবায় সমিতি কক্সবাজারের চকরিয়ার বদরখালী সমবায় কৃষি ও উপনিবেশ সমিতির ব্যবস্থাপনা কমিটির ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রচারণায় স্থানীয় ও জাতীয় নির্বাচনকে হার মানানো সমিতির এই নির্বাচন ছিল আনন্দ ও উৎসবমুখর। বুধবার সকাল ৮ টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

নির্বাচন চলাকালীন ও ভোটের ফলাফল শেষে ভোটারসহ সাধারণ মানুষের মুখ্য আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে উঠে সম্পাদক প্রার্থী এ.কে এম ইকবাল বদরীর নাম। মামলার কারণে তিনি প্রচারণায় অংশ নিতে পারেননি। এমনকি প্রার্থী হয়েও নিজেসহ তার পরিবারের ৮ সদস্য ভোট প্রয়োগ করতে পারেননি। এরপরও তিনি টানা দ্বিতীয়বার সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। ভোটারদের অভিমত প্রথম দফায় বৃহত্তর এই সমিতির সম্পাদক নির্বাচিত হয়ে ব্যাপক উন্নয়ন করেন ইকবাল বদরী। তাই তাকে ঠেকাতে নানা মামলায় জড়িয়ে দেয়া হয়। তার বিরুদ্ধে খাঠানো হয় প্রভাব প্রতিপত্তি। তিন বছর মেয়াদি সমিতির নির্বাচনে ১২টি পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেন ৪৩জন প্রার্থী। তৎমধ্যে সভাপতি, সহ-সভাপতি ও সম্পাদক পদে তিনজন করে ৯জন এবং ৯টি সদস্য পদে ৩৪জন প্রার্থী ভোট যুদ্ধে লিপ্ত হন।

সরজমিন ঘুরে দেখা গেছে, শান্তিপূর্ণ ও উৎসকমুখর পরিবেশে দীর্ঘ লাইন ধরে ভোট দিচ্ছে ভোটাররা। এসময় প্রার্থী ও তাদের কর্মীরা ভোটারদের মন জয়ের লক্ষ্যে নানাভাবে আকৃষ্ট করার চেষ্টা করছিল। প্রার্থীদের সমর্থকরা তাদের নিজ নিজ প্রার্থীর পক্ষে ব্যানার, ফেস্টুন নিয়ে আনন্দ উল্লাস করছিল। প্রশাসনের কড়া নজরদারীর কারণে অপ্রীতিকর কোন ঘটনা ঘটেনি। তবে, ভোট গণনা চলাকালে এজেন্টদের কাছ থেকে সম্পাদক নির্বাচনের ফলাফল জানাজানি হলে বদরখালী বাজারে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এসময় অঘটন এড়াতে পুলিশি টহল জোরদার করা হয়।

ভোট গণনাকালে উপস্থিত থাকা বিভিন্ন প্রার্থীর এজেন্টদের হিসেব অনুযায়ী সমিতির ১৪৮৫ জন ভোটারের মধ্যে ভোট প্রয়োগ করেন ১২৯৩ জন। প্রয়োগকৃত ভোটের মধ্যে নষ্ট হয় ১৪টি। নির্বাচনে বিপুল ব্যবধানে সভাপতি নির্বাচিত হন হাজী নুরুল আলম সিকদার। তার প্রাপ্ত ভোট ৮৬৫। তার প্রতিদ্ব›দ্বী প্রার্থী মোহাম্মদ আলী ভোট পেয়েছেন ৩০৭টি। সহ-সভাপতি পদে ৫৮৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন আলী আজম বাহাদুর, তার প্রতিদ্বন্দ্বী আলী মোহাম্মদ কাজল পেয়েছেন ৪০৭ ভোট। আলোচিত সম্পাদক পদে হয়েছে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। নিজেসহ পরিবারের ৮ সদস্য ভোট দিতে না পারলেও ৪৮০ ভোট পেয়ে সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন এ.কে.এম ইকবাল বদরী। তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী নুরুল আলম জনি ভোট পেয়েছেন ৪৫৮টি।

নির্বাচন চলাকালে পর্যবেক্ষণ ও দায়িত্ব পালন করেন- চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাহেদুল ইসলাম, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো.মাহাবুবউল করিম, কক্সবাজার সদর সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) কাজী মতিউল ইসলাম, চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো.জহিরুল ইসলাম খান, থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো.কামরুল আজম, উপজেলা রেডক্রিসেন্ট কর্মকর্তা মুনীর চৌধুরী, সমবায় কর্মকর্তা আবদুল মান্নানসহ বিভিন্ন দপ্তরের সরকারি কর্মকর্তা, সাংবাদিক, জনপ্রতিনিধিরা।

%d bloggers like this: