Home / প্রচ্ছদ / বন্ধু দিবসে বন্ধু অপহৃত! পরে উদ্ধার : আটক ১

বন্ধু দিবসে বন্ধু অপহৃত! পরে উদ্ধার : আটক ১

Friendনিজস্ব প্রতিনিধি, চকরিয়া

২ আগস্ট রবিবার ছিলো বন্ধু দিবস। এই দিনে নতুন পুরাতন বন্ধুরা যে যেখানে আছে সেখান থেকেই খোঁজ নিচ্ছিল অনেকেই। কিন্তু ব্যতিক্রমি ঘটনা ঘটিয়েছে চকরিয়া ও লামার বন্ধু চার শত্রু। তারা বেড়াতে যাওয়ার অজুহাতে দোকান কর্মচারী বন্ধুকে অপহরণ করে দাবী করেছে ২৫ হাজার টাকা মুক্তিপণ। এ টাকা না দিলে হত্যারও হুমকি দেয়া হয়। কিন্তু বাধ সাধে পুলিশ। ৮ ঘন্টা পর অভিযান চালিয়ে জিন্মীদশা থেকে উদ্ধার করে অপহৃত বন্ধুকে। আটক করা হয় অপহরণকারী দলের নেতা ইয়াসিন আরাফাতকে। চকরিয়ায় অপহরণের এ ঘটনায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ প্রভাষ চন্দ্র ধর বলেন, দোকান কর্মচারী মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন (১৯)কে অপহরণ করার খবর পেয়ে অভিযান চালায় পুলিশ। পরে ৮ ঘন্টা পর উদ্ধার করা হয় তাকে। এসময় অপহরণে জড়িত অভিযোগে আটক করা হয়েছে পার্বত্য উপজেলা লামার আজিজনগর মিশনপাড়ার আবু তাহেরের ছেলে ইয়াসিন আরাফাত(২০)কে। রবিবার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় বালুরঝিড়ি গহীণ জঙ্গল থেকে উদ্ধার করা হয় হারবাং ইউনিয়নের পূর্ব বৃন্দাবনখিল গ্রামের আবুল বশরের ছেলে অপহৃত নিজামকে।

উদ্ধার অভিযানে নেতৃত্ব দেয়া হারবাং পুলিশ ফাঁড়ির আইসি শিমুল কান্তি চৌধুরী বলেন, রবিবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে চকরিয়া ও লামার চার যুবক দু’ভাগে বিভক্ত হয়ে বেড়াতে নেয়ার অজুহাতে নিজামকে অপহরণ করে। পরে বালুরঝিরিস্থ পাহাড়ী জঙ্গলে হাত-পা বেঁেধে নিজামকে আটকে রেখে বিভিন্ন মাধ্যমে আবুল বশরের কাছ থেকে ছেলেকে ছাড়তে ২৫ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবী করে। নচেৎ নিজামকে হত্যা করা হবে বলেও হুমকি দেয়া হয়। এখবর পেয়ে পুলিশ ফোর্স নিয়ে অভিযান চালানো হয়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে অপহরণকারী দলের তিন সদস্য পালিয়ে গেলেও আটক করা হয় অন্যতম হোতা ইয়াসিন আরাফাতকে। উদ্ধার করা হয় অপহৃত নিজামকে। পালিয়ে যাওয়া তিনজনকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। এ ব্যাপারে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: