Home / প্রচ্ছদ / বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে পানি সম্পদমন্ত্রী – মাতামুহুরী নদী শাসন নিশ্চিত করে বন্যামুক্ত করা হবে চকরিয়া-পেকুয়াবাসীকে

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে পানি সম্পদমন্ত্রী – মাতামুহুরী নদী শাসন নিশ্চিত করে বন্যামুক্ত করা হবে চকরিয়া-পেকুয়াবাসীকে

Mukul Chakaria 28.08.2015 (news & pic)মুকুল কান্তি দাশ,চকরিয়া:

পানি সম্পদ মন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি বলেছেন মাতামুহুরী নদী আর অভিশাপ হয়ে থাকবে না। খনন ও তীররক্ষা বাঁধ নির্মাণের মাধ্যমে চকরিয়া-পেকুয়ার মানুষকে বন্যামুক্ত করা হবে। এ লক্ষ্য বাস্তবায়নে শীতের শুরুতে আগামী সেপ্টেম্বর থেকেই প্রাথমিকভাবে ৭০ কোটি টাকার কাজ শুরু হবে। পর্যায়ক্রমে ব্যয় করা হবে ৪’শ কোটি টাকা। ওই টাকা থেকে বিভিন্ন পর্যায়ে উন্নয়ন কাজ করতে ২’শ ৭ কোটি টাকা অনুমোদন হয়েছে। শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৪টায় বন্যা ও জলোচ্ছ্বাসে ক্ষতিগ্রস্ত উপকূলীয় এলাকা পরিদর্শন শেষে মাতামুহুরী ব্রীজের তীরে উপজেলা আওয়ামীলীগ আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্ত্যবে তিনি এসব কথা বলেন।

পানি সম্পদ মন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ সকালে কক্সবাজার পৌঁছে নৌ-পথে সাড়ে ৪ ঘন্টা মহেশখালী-কুতুবদিয়া ও চকরিয়ায় বানে ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ পরিদর্শন করেন। তিনি চকরিয়ার কইন্যারকুম এলাকায় জড়ো হওয়া শতশত নারী-পুরুষকে আশ্বাস দেন আগামী বর্ষার আগেই ভাঙ্গা বেড়িবাঁধ মেরামত করা হবে। কাউকেই বন্যা জলোচ্ছ্বাসের দুর্দশার শিকার হতে হবে না।

পরিদর্শনকালে মন্ত্রীর সাথে ছিলেন চকরিয়া-পেকুয়া আসনের এমপি আলহাজ্ব মোঃ ইলিয়াছ, মহেশখালী-কুতুবদিয়া আসনের এমপি আশেকউল্লাহ রফিক, কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সালাহ উদ্দিন আহমদ সিআইপি, কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মোঃ আলী হোসেন, পাউবো’র নির্বাহী প্রকৌশলী সবিবুর রহমান, চকরিয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব জাফর আলম, কৃষকলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম।

বিকালে মাতামুহুরী ব্রীজ সংলগ্ন নদীতীরে আয়োজিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব জাফর আলম। পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আতিক উদ্দিন চৌধুরীর সঞ্চালনায় সভায় প্রধান অতিথি ছাড়াও বক্তব্য রাখেন চকরিয়া-পেকুয়া আসনের এমপি আলহাজ্ব মোঃ ইলিয়াছ, কক্সবাজার সদর-রামু আসনের এমপি সাইমুম সরওয়ার কমল, চকরিয়া উজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, চকরিয়া পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি জাহেদুল ইসলাম লিটু, উপজেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট ওমর আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক শামসুল আলম, বরইতলী ইউপি চেয়ারম্যান জিয়া উদ্দিন চৌধুরী জিয়া, সুরাজপুর-মানিকপুর ইউপি চেয়ারম্যান আজিমুল হক আজিম, পশ্চিম ইউপি চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিন, বদরখালী ইউপি চেয়ারম্যান নুরে হোছাইন আরিফ, চিরিংগা ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব জসীম উদ্দিন লক্ষ্যারচর ইউপি চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ মানিক, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি সৈয়দ আলম কমিশনার, পৌর আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ওয়ালিদ মিল্টন, পৌরসভা জাতীয় পার্টির সভাপতি জসীম উদ্দিন কমিশনার, সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মুজিবুর রহমান চৌধুরী, কাকারা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি শওকত ওসমান, লক্ষ্যারচর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি রেজাউল করিম সেলিম, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কাউছার উদ্দিন কছির, লক্ষ্যারচর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক খ.ম আওরঙ্গজেব বুলেটসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দরা।

সভায় চেয়ারম্যান আজিম ও জিয়া উদ্দিন বলেন, মানিকপুরের লম্বাঘাট থেকে কোণাখালী পর্যন্ত ভরাট হয়ে যাওয়া মাতামুহুরী নদীর খনন ও দু’পাড়ে বাঁধ নির্মাণ ছাড়াও ব্লক দিতে হবে। উপকূলীয় এলাকায় ঢলে ভাঙ্গা বেড়িবাঁধ নির্মাণ করতে হবে। নচেৎ চকরিয়া-পেকুয়ার ৮ লাখ মানুষ সর্বস্ব খুইয়ে পথে বসবে।

পানি সম্পদ মন্ত্রী ও জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদকে উদ্দেশ্য করে পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি জাহেদুল ইসলাম লিটু বলেন, গত সংসদ নির্বাচনে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি জাফর আলম মনোনয়ন পাওয়া সত্বেও মহাজোটের স্বার্থে জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে মনোনয়ন প্রত্যাহারের মাধ্যমে জাতীয় পার্টির নেতা আলহাজ্ব মোঃ ইলিয়াছকে এমপি নির্বাচিত করার জন্য আমরা ত্যাগ স্বীকার করেছি। সেই ত্যাগের বিনিময় হিসেবে চকরিয়া-পেকুয়ার মানুষকে বন্যা আতংক থেকে মুক্ত করতে মাতামুহুরী নদীর খনন, নদী তীর ও পৌর শহর রক্ষাবাঁধ নির্মাণ করতে হবে।

প্রতি উত্তরে পানি সম্পদ মন্ত্রী বলেন, আমাকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা সরজমিন পরিদর্শন করতে পাঠিয়েছেন। এই এলাকার জনগুরুত্বপূর্ণ আমার মন্ত্রণালয়ের অধীন সকল সমস্যা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সমাধান করা হবে।

পানি সম্পদ মন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি মঞ্চে উঠলে তাকে ক্রেস্ট উপহার দিয়ে বরণ করে নেন উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আলম।

Leave a Reply

%d bloggers like this: