Home / প্রচ্ছদ / বাংলাদেশ-মিয়ানমার মৈত্রী সড়ক উন্নীত হচ্ছে চার লেনে : ভূমি অধিগ্রহন সম্পন্ন

বাংলাদেশ-মিয়ানমার মৈত্রী সড়ক উন্নীত হচ্ছে চার লেনে : ভূমি অধিগ্রহন সম্পন্ন

Rafiq - Kutbazar 28.01.16  (news 3pic) f1 (1)রফিক মাহামুদ; কোটবাজার :

বাংলাদেশ-মিয়ানমার মৈত্রী সড়ককে চার লেনের উন্নীত করণে লক্ষ্যে ভূমি অধিগ্রহন ও যৌথ সম্ভাব্যতা যাচাই সম্পন্ন হয়েছে। প্রায় ৮৪কোটি টাকা ব্যয়ে উখিয়ার ঘাট থেকে ঘুমধুম লাল ব্রিজ পর্যন্ত ২ কিলোমিটার চার লেনের সড়কটি বাস্তবায়ন করছে ১৬ ইসিবি। এ সড়কটি বাস্তবায়ন হলে পূর্বমূখী মিয়ানমার, থাইল্যান্ড ও চীনের সাথে সরাসরি সড়ক যোগাযোগ সহ অর্থনৈতিক জোন গড়ে উঠবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর বাংলাদেশ-মিয়ানমার মৈত্রী সড়ক বাস্তবায়ন ও ঘুমধুম পর্যন্ত রেল লাইন স্থাপনে মহা পরিকল্পনা গ্রহন করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত একনেকের সভায় সীমান্ত সুরক্ষা ও বাংলাদেশ-মিয়ানমার সড়ক বাস্তবায়নে প্রায় ২শ কোটি টাকা বরাদ্দের অনুমোদন হয়। একনেকের প্রকল্প গৃহিত হওয়ায় সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সম্প্রতি ঘুমধুম পয়েন্ট পরির্দশন করেন।

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের অধীনে বাস্তবায়নাধীন বাংলাদেশ-মিয়ানমার মৈত্রী সড়কের কাজ ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে। ঘুমধুম পর্যন্ত রেললাইন সম্প্রসারণ ও বাংলাদেশ-মিয়ানমার মৈত্রী সড়ককে চার লেনে উন্নতিকরণ ইতোমধ্যে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

দায়িত্বশীল সূত্রে জানা যায়, বাংলাদেশ-মিয়ানমার মৈত্রী সড়ক ও আন্ত:এশিয়া আঞ্চলিক সড়ক বাস্তবায়নে থাইল্যান্ড, চীন ও বাংলাদেশের মধ্যে ত্রি-পাক্ষিয় সমঝোতা স্মারক সই চুক্তি সম্পন্ন হয়েছে। স্মারক, সইচুক্তি কালে স্ব-স্ব দেশের যোগাযোগ মন্ত্রণালয় সহ পরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ও উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

কক্সবাজার সড়ক ও জনপদ বিভাগ সুত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশ-মিয়ানমার মৈত্রী সড়কটি চার লেনে উন্নীত করণের লক্ষ্যে ভূমি অধিগ্রহন ও যৌথ সম্ভাব্যতা যাচাই কার্যক্রম শুরু করার জন্য বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ইঞ্জিনিয়ারিং-কোর (১৬ ইসিবি) ২০১৫ সালের ১৪ ডিসেম্বর জেলা প্রশাসককে অনুরোধ করেন। যার স্মারক নং-৬০৯/প্রজেক্ট। এর প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ ভূমি অধিগ্রহন কর্মকর্তা এমএম মাহামুদুর রহমান, অতিরিক্ত ভূমি অধিগ্রহন কর্মকর্তা মুজিবুর রহমান, কানুনগো দিদারুল আলম ও ইসিবির ল্যান্ড বিভাগের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা যৌথ জরীপ চালিয়ে ২০ জানুয়ারী সম্ভব্যতা যাচাই ও ভূমি অধিগ্রহনের তদন্ত শেষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) শেখ ফরিদ আহমদ স্বাক্ষরিত এক প্রতিবেদন দাখিল করেন।

উখিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাঈন উদ্দিন জানান, উখিয়ার ঘাট মৌজা হতে বাংলাদেশ-মিয়ানমার মৈত্রী সড়কের জন্য ৩ একর ৯৪ শতাংশ ভূমি অধিগ্রহন ও সম্ভাব্যতা যাচাই শেষ হয়েছে।

%d bloggers like this: