শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:২০ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
বিএনপির জন্য অপেক্ষা করবে নির্বাচন কমিশন মহেশখালীর খাইরুল আমিন হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন সাউথ এশিয়ান কারাতে চ্যাম্পিয়নশীপ প্রতিযোগিতায় লামার মডার্ণ স্কুলের অভাবনীয় অর্জন ভ্রমণে ইনানী সমুদ্রসৈকত চমেকে ঈদগাঁওর সংবাদকর্মী পুত্র জামির সফল অপারেশন সম্পন্ন কক্সবাজারে আইনজীবীদের আদালত বর্জন কর্মসূচী স্থগিত টনসিলের ব্যথা দূর করার উপায় প্রধানমন্ত্রীর জনসভা সফল করতে চট্টগ্রামে যুবলীগের প্রস্তুতি সভা ২৬ শর্তে বিএনপিকে সোহরাওয়ার্দীতে গণসমাবেশের অনুমতি এডঃ হারুন অর রশিদ’র পিতার মৃত্যুতে কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির শোক প্রকাশ এসএসসিতে ঈদগাঁও উপজেলার ৬টি প্রতিষ্ঠানে ফলাফল : এ+ পেল ৯০ জন

ভাড়াটিয়াদের বর্জ্য নিক্ষেপ : উখিয়া কেজি স্কুলের শিক্ষার্থীরা ভোগান্তিতে

ঈদগাঁওর কাঁচা বাজারে দুর্গন্ধে সয়লাব

ভাড়াটিয়াদের বর্জ্য নিক্ষেপ : উখিয়া কেজি স্কুলের শিক্ষার্থীরা ভোগান্তিতে

ভাড়াটিয়াদের বর্জ্য নিক্ষেপ : উখিয়া কেজি স্কুলের শিক্ষার্থীরা ভোগান্তিতে

হুমায়ুন কবির জুশান. উখিয়া :

কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার সর্বপ্রথম প্রতিষ্ঠিত ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, উখিয়া কেজি স্কুলটি শিক্ষা, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনে এক অভাবনীয় কৃতিত্বের স্বাক্ষর রেখে চলছে। ঢাকা গাজিপুর মৌচাকে অনুষ্ঠিত কাব ক্যাম্পুরীতে কক্সবাজার জেলার শ্রেষ্ঠ কাব ইউনিট হিসেবে ২০০০ সালে তৎকালীন ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার হাত থেকে প্রথম পুরস্কারের গৌরব অর্জন করেন উখিয়া কেজি স্কুল।

প্রতি বছরের ন্যায় ২০১৪ সালে ও পিএসসি পরীক্ষায় ট্যালেন্টপুল বৃত্তিসহ শতভাগ পাশের ধারাবাহিকতা অক্ষুন্ন রাখে। জাতীয় দিবস সমূহের ডিসপ্লেতে প্রথম ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিনের শিশু দিবসে চিত্রাংকন প্রতিযোগীতায় পুরো উপজেলায় প্রাথমিক পর্যায়ে ১ম, ২য় ও ৩য় স্থানের কৃতিত্ব অর্জন করেছে এ স্কুলের শিক্ষার্থীরা।

উখিয়া সদর থানা সংলগ্ন মনোরম পরিবেশে ১৯৯২ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় এ স্কুলটি। এলাকার বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী, রাজনীতিবিদ, বিজ্ঞ আইনজীবী এ.কে.এম শাহজালাল চৌধুরীর বদন্যতায় প্রতিষ্ঠিত এ স্কুল থেকে অসংখ্য শিশু ছাত্র-ছাত্রী বর্তমানে বিভিন্ন উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত আছে। তারই সহধর্মীনি হাসিনা জালাল চৌধুরী অধ্যক্ষের দায়িত্ব পালন করছেন। প্রতিষ্ঠাতা শাহজালাল চৌধুরীর দিক-নির্দেশনায় স্কুলটি উত্তরোত্তর সুনামের সাথে এগিয়ে চলছে। স্কুলের অভিভাবিকাদের জন্য রয়েছে একটি ওয়েটিং রুম। আদরের সন্তানকে ক্লাসে দিয়ে অভিভাবকেরা ওয়েটিং রুমে অপেক্ষা করেন। ছাত্র –ছাত্রীর অভিভাবকদের অভিযোগ, পচাঁ দুর্গন্ধ জনিত কারণে ওয়েটিং রুমে বসা যাচ্ছে না।

তারা জানান, বিদ্যালয়ের পাশে প্রতিনিয়ত ময়লা-আবর্জনা নিক্ষেপের ফলে প্রতিষ্ঠানের পরিবেশ ভারি হয়ে উঠেছে। শুধু তাই নয়, চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছে শিক্ষার্থীরাও। অভিভাবিকাদের মধ্যে নাজমা, আসমা, পাখী, মিনিক্ষি রানী, পুরভি, জেসমিন, সাদিয়া সামিরা, নাসিমা ও খদিজাসহ বেশ কয়েকজন অভিযোগ করে জানান, ওয়েটিং রুমের পাশে পানির কল থাকায় ছাত্র-ছাত্রীরা পানি খাওয়ার জন্য প্রায় সময় সেখানে ভিড় জমায়।

এমতাবস্থায় সৃষ্ট ময়লা আবর্জনার দুর্গন্ধে সকলেরই দম বন্ধ হয়ে যাওয়ার উপক্রম হয়। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বিদ্যালয়ের পাশেই অবস্থিত বহুতল ভবনের ভাড়াটিয়ারাই ওয়েটিং রুমের পাশে খোলা জায়গায় তাদের ব্যবহৃত ময়লা-আবর্জনা ফেলছে। ওই বাড়ির ভাড়াটিয়ারা সত্যতা স্বীকার করে বলেন, নির্দিষ্ট কোন ডাস্টবিন না থাকায় তারা রান্না ঘরের আবর্জনাসহ পলিথিনে ভরে নিক্ষেপ করছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে স্কুল অধ্যক্ষ হাসিনা জালাল চৌধুরী জানান, অভিভাবিকাদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে বাড়ির মালিক ও স্কুল কমিটির সদস্য সিরাজ উদ্দিন চৌধুরীকে বিষয়টি জানানো হলে তিনি আশ্বস্থ করেন স্কুলের পাশে যাতে ময়লা আবর্জনা ফেলা না হয় সে জন্য ভাড়াটিয়াদের সতর্ক করে দেওয়া হবে।

https://www.facebook.com/coxviewnews

Design BY Hostitbd.Com