Home / প্রচ্ছদ / লক্ষ্য ২০২১ : এবার পেকুয়ায় ১২’শ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা সম্পন্ন দুটি প্রকল্প নির্মাণের প্রস্তাব

লক্ষ্য ২০২১ : এবার পেকুয়ায় ১২’শ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা সম্পন্ন দুটি প্রকল্প নির্মাণের প্রস্তাব

Electricity - 4মুকুল কান্তি দাশ; চকরিয়া :

দেশে বিদ্যুৎ ঘাটতি শূন্যের কোটায় নিয়ে প্রতিটি ঘরে বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করতে সরকার নানা উদ্যোগ নিচ্ছে। সেই উদ্যেগে এবার ইতিহাসের অংশ হতে যাচ্ছে পর্যটন জেলা কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলা। দ্বীপ উপজেলা মহেশখালীর পর পেকুয়ায় দুটি কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নিমার্ণের প্রাথমিক পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। এই দুটি বিদ্যুৎ কেন্দ্রে প্রায় ১২’শ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। মহেশখালীতে নির্মাণাধীন কেন্দ্র দুটিতেও ১২’শ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়।

আল্ট্রা সুপার ক্রিটিক্যাল কোল ফায়ার্ড পাওয়ার প্রজেক্টের আওতায় মহেশখালীতে নির্মাণাধীন বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে ৬’শ করে ১২’শ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে । অনুরুপভাবে পেকুয়ায় কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে দুটি প্রজেক্ট নির্মাণের জন্য প্রয়োজনীয় প্রদক্ষেপ নেয়া শুরু করেছে বিদ্যুৎ বিভাগের ইলেকট্রিসিটি জেনারেশন কোম্পানি লিমিটেড অব বাংলাদেশ(ইজিসিবি)। এ দুটি বিদ্যুৎ প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে এখান থেকেও ৬’শ করে ১২’শ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে।

ইজিসিবি সূত্র জানায়, পরিকল্পনা কমিশনের শিল্প ও শক্তি বিভাগে ল্যান্ড ইক্যুইজেশন রিসেটেলমেন্ট এন্ড ফিজিবিলিটি স্টাডি ফর ইমপ্লিমেন্টশন অব ২.৬০০ মেগাওয়াট কোল বেজড পাওয়ার প্ল্যান্ট প্রকল্পের জন্য প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। এই প্রকল্প বাস্তবায়নে প্রাথমিকভাবে বরাদ্দ হিসেবে ৫১৬ কোটি টাকা ব্যয় প্রস্তাব করা হয়েছে। তন্মধ্যে ১৭ কোটি টাকা যোগান দেবে ইজিসিবি। প্রাথমিকভাবে প্রকল্প নির্মাণের মেয়াদ ধরা হয়েছে ২০১৬ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত। প্রাথমিক কাজ সম্পাদনের পর শুরু হবে চুড়ান্ত কাজ।

বাংলাদেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ ৩৫ হাজার ৯৮৪ কোটি ৪৬ লাখ টাকা ব্যয়ে কক্সবাজারের মহেশখালীর মাতারবাড়িতে কয়লাভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎ প্রকল্পের কাজ চলছে। এই প্রকল্প থেকে ১৩ কিলোমিটার অদূরে পেকুয়ার উজানটিয়ায় ১২’শ মেগাওয়াট উৎপাদন ক্ষমতা সম্পন্ন আরো দুটি বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের প্রাথমিক উদ্যোগ নেয়ায় রচিত হতে যাচ্ছে নতুন ইতিহাস।

সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, বর্তমানে দেশে বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে ১৩ হাজার ৭’শ মেগাওয়াট। ২০২১ সালের মধ্যে এই উৎপাদন ক্ষমতা ২৩ হাজার মেগাওয়াটে উন্নিত করতে মহেশখালীর পর পেকুয়ায়ও বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে পেকুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মারুফুর রশিদ খান বলেন, উপজেলার উজানটিয়ায় দুটি বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের লক্ষ্যে যাচাই বাছাই হচ্ছে। ১৫৬০ একর জমি অধিগ্রহণের প্রস্তাব রয়েছে। সে লক্ষ্য বাস্তবায়নের প্রাথমিক পদক্ষেপ হিসেবে এলাকাটির ভিডিও চিত্র ধারণ করা হয়েছে স্থাবর-অস্থাবর সম্পদ, পূণর্বাসন, পরিবেশগত প্রভাবসহ নানা দিক পর্যালোচনা করার সুবিধার্থে।

%d bloggers like this: