সোমবার, ১৫ অগাস্ট ২০২২, ১০:২৫ অপরাহ্ন

লবণের ন্যায্য মূল্য ও দালালদের হয়রানির প্রতিবাদে-

 কুতুবদিয়ায় লবণ চাষীদের অবহিত করণ সভা সম্পন্ন

এম.রাসেল খাঁন জয়; কুতুবদিয়া :

প্রান্তিক চাষীদের উৎপাদিত লবণের ন্যায্যমূল্য ও দালালদের হয়রানির থেকে মুক্তি পাওয়ার লক্ষ্যে ৩১ জানুয়ারী মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার লেমশীখালী ইউনিয়নের দরবার ঘাট এলাকায় লেমশীখালী প্রান্তিক লবণ চাষী সমিতির লিঃ এর উদ্যোগে লবণ চাষীদের অবহিতকরণ সভা মুক্তিযোদ্ধা মকবুল আহম্মদের সভাপতিত্বে ও লেমশীখালী প্রান্তিক লবণ চাষী সমিতির সভাপতি এডভোকেট ফিরোজ আহম্মদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুতুবদিয়া উপজেলা সমবায় অফিসার কামাল পাশা। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,কুতুবদিয়া আদালতের পিপি এডভোকেট এ ইউ এম জিল্লুল করিম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক ছাত্রলীগ নেতা শেখ শহিদুল ইসলাম (লালা), উপজেলা বাস্তুহারা লীগের সভাপতি ও আইনজীবি সহকারী মনির আহম্মদ মাতবর, লেমশীখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম,সমাজসেবক রেজাউল করিম।

বক্তব্য রাখেন, আ’লীগনেতা ইসমাঈল, আইনজীবী সহকারী জহিরুল ইসলাম লেমশীখালী লবণ চাষী সমিতির সাধারণ সম্পাদক হাজী কলিম উল্লাহ, লবণ চাষী আবুল বশর প্রমুখ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জনপ্রতিনিধি, সমিতির অন্যান্য সদস্য এবং স্থানীয় অসংখ্য লবণ চাষীরা।

সভায় বক্তারা বলেন, কক্সবাজারের দ্বীপ উপজেলা কুতুবদিয়া প্রায় বিশ হাজারের অধিক লোক সরাসরি লবণ চাষের সাথে সম্পৃক্ত। তারা মাথার ঘাম পায়ে পেলে অনেক পরিশ্রম করে লবণ উৎপাদন করে যাচ্ছে। প্রান্তিক চাষীদের উৎপাদিত লবণের ন্যায্যমূল্য পাচ্ছেনা সাধারণ লবণ চাষীরা। তাদের উৎপাদিত লবণ পরিমাপ নিয়ে দালালদের নিকট হয়রানির শিকার হচ্ছেন।

লবণ দালালরা বাটখারা নিক্তি ব্যবহার না করে বালতি পদ্ধতি ব্যবহার করে ৪০কেজি ওজনের মণের পরিবর্তে ৫০-৬০কেজি করে নিয়ে যাচ্ছে। প্রান্তিক চাষীদের উৎপাদিত লবণের ন্যায্যমূল্য ও দালালদের বালতি পদ্ধতি নামের হয়রানি বন্ধ না করলে অবিলম্বে দূর্বার আন্দোলন গড়ে তোলার হুশিয়ারী উচ্চারণ করেন বক্তারা। সাথে সাথে লবণের ন্যায্যমূল্য ও দালালদের হয়রানির থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য সাধারণ লবণ চাষীদের লেমশীখালী প্রান্তিক লবণ চাষী সমিতির সাথে একাত্মতা ঘোষণা করার জন্য আহবান জানায়।

https://www.facebook.com/coxviewnews

Design BY Hostitbd.Com