শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৪:২১ অপরাহ্ন

শিরোনাম
বিএনপির জন্য অপেক্ষা করবে নির্বাচন কমিশন রামুতে শত বৎসরের চলাচলের রাস্তা দখল মুক্ত করল উপজেলা প্রশাসন মহেশখালীর খাইরুল আমিন হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন সাউথ এশিয়ান কারাতে চ্যাম্পিয়নশীপ প্রতিযোগিতায় লামার মডার্ণ স্কুলের অভাবনীয় অর্জন ভ্রমণে ইনানী সমুদ্রসৈকত চমেকে ঈদগাঁওর সংবাদকর্মী পুত্র জামির সফল অপারেশন সম্পন্ন কক্সবাজারে আইনজীবীদের আদালত বর্জন কর্মসূচী স্থগিত টনসিলের ব্যথা দূর করার উপায় প্রধানমন্ত্রীর জনসভা সফল করতে চট্টগ্রামে যুবলীগের প্রস্তুতি সভা ২৬ শর্তে বিএনপিকে সোহরাওয়ার্দীতে গণসমাবেশের অনুমতি এডঃ হারুন অর রশিদ’র পিতার মৃত্যুতে কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির শোক প্রকাশ

লামায় প্রথমে প্রেম করে ও পরে ধর্ষণ

Rape - 10 (c)মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, লামা :

পার্বত্য জেলা বান্দরবানের লামা উপজেলার লামা সদর ইউনিয়নের বৈল্ল্যারচর এলাকায় পবিত্র কোরান শরীফ ধরে শপথ করে বিয়ে করার আশ্বাস দিয়ে লাভলী আক্তার (১৪) নামের এক কিশোরীর সম্ভ্রম কেড়ে নিয়েছে একই এলাকার আব্দুর রহমানের ছেলে প্রতারক জাফর আলী (২১)। ধর্ষিতা বৈল্ল্যারচর এলাকার জামাল কারবারীর মেয়ে।

ভিকটিমের বাবা জামাল কারবারী জানান, তার বড় মেয়ে ছেনোয়ারা বেগম লামা পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড নয়াপাড়ায় ভাড়া বাড়িতে থাকত। স্বামী প্রবাসে থাকায় বড় মেয়ের সাথে থাকত তার ছোট মেয়ে লাভলী। জাফর আলী লাভলী আক্তারের বড় বোনের বাড়ীতে এসে লাভলী আক্তারকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে প্রায় সময় বিরক্ত করতো। লাভলী আক্তারের অনিচ্ছা সত্ত্বেও জাফর আলী লাভলী আক্তারের পিছনে পড়ে থাকে।

এক পর্যায়ে জাফর আলী পবিত্র কোরাআন শরীফ ধরে বিশ্বাস জন্মায় মতো বিভিন্ন রকম শপথ করায় লাভলী আক্তার বিশ্বাস করে জাফর আলীর প্রেমের প্রস্তাবে রাজি হয়। লাভলী আক্তারের মন আদায় করে এর কিছুদিন পর আবার বিয়ে করার প্রস্তাব নিয়ে উঠে পড়ে লাগে। কিশোরী লাভলীকে বিয়ে করবে বলে পরিবারের অগোচরে একবার চকরিয়া ও পরে কক্সবাজার নিয়ে হোটেলে রেখে সর্বস্ব কেড়ে নেয় জাফর।

অবুঝ কিশোরীকে গর্ভপাত রোধে স্বাস্থ্য ভাল রাখার ঔষধ বলে কয়েকবার তাকে জন্ম নিয়ন্ত্রণ পিল খাওনো হয়।

লাভলী যখন বুঝতে পারে তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে সম্ভ্রম কেড়ে নিয়ে জাফর আলম ও তার বন্ধু নুরুল আলম প্রতারণা করেছে। তখন লজ্জায় নিরুপায় হয়ে আত্মহত্যা করতে গেলে বিষয়টি তার পরিবার অবহিত হয়।

অসহায় দরীদ্র জামাল কারবারী লোক লজ্জার ভয়ে স্থানীয় ভাবে আপোষ নিষ্পত্তি করতে গেলে ছেলের বাবা আব্দু রহমান তাকে অন্যত্র সরিয়ে ফেলে মেয়ের পরিবারকে প্রাণনাশ সহ বিভিন্ন হুমকি দিলে নিরুপায় হয়ে ২৩ আগষ্ট লামা থানায় এজাহার দাখিল করে। মামলার ৫দিন অতিবাহিত হলেও কোন অগ্রগতি না হওয়ায় এবং আসামী গ্রেফতার না করায় সুযোগ পেয়ে আসামী পক্ষ বাদীকে প্রতিনিয়ত মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে আসছে।

ধর্ষণের ঘটনা ও মামলা বিষয়ে নিশ্চিত করে লামা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সিরাজুল ইসলাম এ প্রতিবেদককে জানান, বিষয়টি জানার সাথে সাথে আমরা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ এর ৭/৯(১)/৩০ তৎসহ ৩৭৯ ধারায় মামলা এন্টি করি। লামা থানা মামলা নং ০৯/৫৭।

মামলা রুজু হয়েছে জেনে আসামীরা এলাকা ছেড়ে অন্যত্র পালিয়ে যাওয়ায় আসামী গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। তবে আসামী গ্রেফতারে পুলিশ তৎপর রয়েছে।

https://www.facebook.com/coxviewnews

Design BY Hostitbd.Com