রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৫:৪৬ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
বিএনপির জন্য অপেক্ষা করবে নির্বাচন কমিশন আলীকদমে দর্শকের ওপর ক্ষেপে ফাইনাল খেলার ট্রফি ভাঙলেন ইউএনও আলীকদমে ট্রফি ভেঙ্গে ভাইরাল ইউএনও ঈদগাঁওতে অর্ণবের উদ্যোগে কোভিড প্রতিরোধে টাউন বৈঠক অনুষ্ঠিত লামায় বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও পরিদর্শনে পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর কক্সবাজারে চারদিন ব্যাপী শেখ হাসিনা বই মেলার উদ্বোধন ঈদগাঁওতে আসন্ন দূর্গাপূজা উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত  কক্সবাজারে শেখ হাসিনা বইমেলার উদ্বোধন : সম্মাননা পেলেন ঈদগাঁওর শিক্ষক খুরশীদুল জন্নাত সাফ গেমসে নারী ফুটবলারদের পাহাড়ের নারী খেলোয়াড়দের ৫০ হাজার টাকা ও সংবর্ধনার ঘোষণা দিয়েছেন পার্বত্য মন্ত্রী সরকারি চাকরির আবেদনে ৩৯ মাস ছাড় ‘প্রচারবিমুখ এই স্কুলটি সত্যিই অন্যরকম’—বিচারপতি হাবিবুল গনি”

লামায় রাস্তায় ফেলে স্কুল ছাত্রীকে মারধর

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম; লামা :

কোচিং ক্লাস থেকে বাড়িতে ফেরার পথে উম্মে হাবিবা নামে দশম শ্রেণির স্কুল ছাত্রীকে মেরে জখম করেছে জাহেদুল ইসলাম (১৮) নামে এক যুবক। সোমবার (১৫ আগস্ট) দুপুর ১২টায় বমু বিলছড়ি ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড পূর্ব পাড়ার রহিমের দোকানের সামনে এই ঘটনা ঘটে। আহত উম্মে হাবিবাকে লামা হাসপাতাল থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে রেফার করা হয়।

আহত স্কুল ছাত্রী চকরিয়ার বমু বিলছড়ি ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড পূর্ব পাড়ার মোঃ বাবু মিয়া ও ইয়াছমিন আক্তার এর মেয়ে এবং লামা আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী। হামলাকারী জাহেদুল ইসলাম একই গ্রামের মোঃ আলমগীর ও তাহেরা বেগমের ছেলে। তারা দুইজনই মামাতো ফুফাতো ভাই-বোন।

স্কুল ছাত্রী উম্মে হাবিবার মা ইয়াছমিন আক্তার বলেন, জাহেদুল ও তার পরিবারের লোকজন সোমবার সকাল ১০টার দিকে আমার বাড়ির একটি সুপারী গাছ কেটে নিয়ে যাওয়ার সময় তাদের সাথে আমাদের কথাবার্তা কাটাকাটি হয়। সে ঘটনার জের ধরে দুপুর ১২টায় আমার মেয়ে লামা বাজার হতে কোচিং ক্লাস শেষ করে বাড়িতে আসার সময় পূর্ব পাড়া দোকানের সামনে জাহেদুল ইসলাম তাকে প্রকাশ্যে মারধর করে। আমি আমার যুবতী মেয়েকে মারধরের বিচার চাই।

উম্মে হাবিবা বলেন, লোকজনের সামনে প্রকাশ্যে জাহেদুল আমাকে ঘাড়, চুল ধরে কপালে ও মুখে গাছের সাথে অনবরত আঘাত করে। এসময় আমার নাকের হাড় ভেঙ্গে যায়, কপাল ফুলে যায় এবং দাঁত হতে রক্ত বের হয়। তারপর চুল ধরে মারধর করে। দূর থেকে তার মা বোন চেয়ে থাকে এবং আরো মারতে উৎসাহ দেয়।

এই বিষয়ে বমু বিলছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল কাদের বলেন, আহত মেয়ে ও ছেলেটি আপন মামাতো ফুফাতো ভাই-বোন। উম্মে হাবিবার বাবা ও জাহেদুল ইসলামের মা আপন ভাই-বোন। সকালে ছেলেটির মাকে মেয়েটির বাবা মারলে সেই রাগে ছেলেটি তার ফুফাতো বোনকে মারধর করো। বিষয়টি পরিষদে আসলে দুইপক্ষের মতামতে সমাঝোতা ও মিলমিশ করে দিই এবং মেয়েটির চিকিৎসার জন্য ক্ষতিপূরণ বাবদ দুই হাজার টাকা দিতে বলি। প্রয়োজনে আরো খরচ দেয়া হবে বলে আশ্বস্ত করি। মেয়েটি বয়সে ছোট হলেও ছেলেটিকে মেয়ের পা ধরে ক্ষমা চাওয়ানো হয়েছে এবং মেয়ের মায়ের কাছেও ক্ষমা চেয়েছে। তবে মেয়ের মা ইয়াছমিন আক্তার খুবই উশৃঙ্খল প্রকৃতির মহিলা। সে কাউকে মানতে চায়না।

https://www.facebook.com/coxview

Design BY Hostitbd.Com