রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৫:২৯ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
বিএনপির জন্য অপেক্ষা করবে নির্বাচন কমিশন আলীকদমে দর্শকের ওপর ক্ষেপে ফাইনাল খেলার ট্রফি ভাঙলেন ইউএনও আলীকদমে ট্রফি ভেঙ্গে ভাইরাল ইউএনও ঈদগাঁওতে অর্ণবের উদ্যোগে কোভিড প্রতিরোধে টাউন বৈঠক অনুষ্ঠিত লামায় বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও পরিদর্শনে পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর কক্সবাজারে চারদিন ব্যাপী শেখ হাসিনা বই মেলার উদ্বোধন ঈদগাঁওতে আসন্ন দূর্গাপূজা উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত  কক্সবাজারে শেখ হাসিনা বইমেলার উদ্বোধন : সম্মাননা পেলেন ঈদগাঁওর শিক্ষক খুরশীদুল জন্নাত সাফ গেমসে নারী ফুটবলারদের পাহাড়ের নারী খেলোয়াড়দের ৫০ হাজার টাকা ও সংবর্ধনার ঘোষণা দিয়েছেন পার্বত্য মন্ত্রী সরকারি চাকরির আবেদনে ৩৯ মাস ছাড় ‘প্রচারবিমুখ এই স্কুলটি সত্যিই অন্যরকম’—বিচারপতি হাবিবুল গনি”

সুগন্ধা পয়েন্টে রাতের আধারে স্থাপনা নির্মাণ : প্রভাবশালী মহল

সুগন্ধা পয়েন্টে রাতের আধারে স্থাপনা নির্মাণ : প্রভাবশালী মহল

সুগন্ধা পয়েন্টে রাতের আধারে স্থাপনা নির্মাণ : প্রভাবশালী মহল

সুগন্ধা পয়েন্টে রাতের আধারে স্থাপনা নির্মাণ : প্রভাবশালী মহল

বার্তা পরিবেশক

কক্সবাজার কলাতলীর এলাকার হোটেল মোটেল জোন সুন্ধা পয়েন্টের বীচ রোড়ের জায়গা ও ড্রেন দখল করে অবৈধ ভাবে স্থাপনা নির্মাণ করার জন্য মাটি ভরাট করছে এক শ্রেণীর প্রভাবশালী ব্যক্তি। এরা কখনো রাজনৈতিক নেতার আত্মীয় ও কখনো বা প্রশাসনের শীর্ষ কর্তা ব্যক্তির নাম ভাঙ্গিয়ে অবৈধ এ দখলবাজি করে যাচ্ছে। সৈকতে এসব স্থাপনা রক্ষার দায়িত্বে নিয়োজিত থাকা ট্যুরিষ্ট পুলিশ এ বিষয়ে নিষ্ক্রিয় থাকায় জনমনে নানা প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে।

সোমবার দুপুরে সরজমিনে পরিদর্শনে দেখা যায়, হোটেল মোটেল জোনের সুগন্ধা পয়েন্টের বীচ রোড়ে সরকারী জায়গা ও ড্রেন দখল করে স্থাপনা নির্মাণ করার জন্য রাতের আধারে ট্রাক ভর্তি করে মাটি ও কংকর জমা করে রেখেছে দখলধারীচক্র। এরা উক্ত বীচ রোড়ের কয়েক জায়গায় স্থাপনা তৈরী করার জন্য জায়গা চিহ্নিত করে পজিশন তৈরী করে রেখেছে। কখনো রাজনৈতিক নেতার আত্মীয় আর কখনো বা প্রশাসনের শীর্ষ কর্তা-ব্যক্তির নাম ভাঙ্গিয়ে তারা এ দখল বাজি চালিয়ে যাচ্ছে। এ বিষয়ে কেউ প্রতিবাদ করলে তাকে জানে মেরে ফেলা সহ নানান মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানী করা হবে বলেও জনমুখে প্রচার করেছে। ঈদুল আযাহার পরের দিন হতে শুরু হওয়া আসন্ন পর্যটন মৌসুমকে উপলক্ষ করে অবৈধ মাদকের ব্যবসা করতে এসব স্থাপনা নির্মাণ করা হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন অনেকে।

ইতিপূর্বে প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত উক্ত স্থান থেকে কয়েকবার অভিযান চালিয়ে অনেক স্থাপনা উচ্ছেদ করলেও সপ্তাহ যেতে না যেতেই পুনরায় দখল করে ওই চক্র।

উক্ত এলাকায় বৈধ ব্যবসায়ীরা (নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক) অভিযোগ করেন, বীচ রোড়ে অবৈধ দখল করে গড়ে উঠা দোকান ও ভাসমান দোকানগুলো লোকদেখানো। কিছু পণ্য জনসমক্ষে বিক্রি করলেও পেছনে এর আড়ালে এরা মাদকের ব্যবসা করে। পর্যটকদের সাথে কন্ট্রাক করে সুযোগ বুঝে এরা মাদকের সরবরাহ করে।

তারা অবিলম্বে এসব অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ বন্ধ ও গড়ে উঠা স্থাপনাগুলো উচ্ছেদ করতে প্রশাসনের সু-দৃষ্টি কামনা করেন।

https://www.facebook.com/coxview

Design BY Hostitbd.Com