Home / প্রচ্ছদ / সাম্প্রতিক... / শিক্ষা-দিক্ষা / স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার মাধ্যমে শিক্ষার মান উন্নয়নে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে মা-সমাবেশ

স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার মাধ্যমে শিক্ষার মান উন্নয়নে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে মা-সমাবেশ

Nurul hossain 19.02.16 (news 2pic) (1)নিজস্ব সংবাদদাতা; টেকনাফ :
কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার ঐতিহ্যবাহী টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের আয়োজনে বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষার্থীদের মায়েদের অংশগ্রহণে ১৯ ফেব্রুয়ারী সকাল ১০ টার দিকে মা-সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার মাধ্যমে শিক্ষার মান উন্নয়নে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত এ মা সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুর হোসাইন ও রাজিয়া সুলতানা সালমা পরিচালনায় মা সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের দাতা সদস্য আলহাজ্ব নুরুল হুদা, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বিদ্যালয় পরিচালনার কমিটির অভিভাবক সদস্য মোহাম্মদ আলম বাহাদুর, বক্তব্য রাখেন, নুর হোসেন, বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক বাশিরাম দে, আরশাদ আলী, শফিউল আলম, মুজিবুর রহমান খোকন, নুরুল আবছার, আল আমিন, ৮ম শ্রেনীর ওয়াহিদার ফারজানার মা রুবিনা আক্তার, ১০ম শ্রেনীর ইয়াছমিন ফাতেমার মা হালিমা সাদিয়া, ৮ম শ্রেনীর ছাত্রীর অভিভাবক রাজিয়া সুলতানা প্রমুখ।
অংশগ্রহণকারী মায়েরা বিদ্যালয়ের বর্তমানে প্রধান শিক্ষক নুর হোসাইন যোগদান করার পর থেকে শিক্ষকদের আন্তরিকতা ও শিক্ষা কার্যক্রম সম্পর্কে সন্তোষ প্রকাশ করেন। ঐতিহ্যবাহী টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় ১৯৪৬ সালে প্রতিষ্টিত হলেও এই প্রথম শিক্ষার্থীদের মা সমাবেশ অনুষ্টিত হয়েছে।
৮ম শ্রেনীর ওয়াহিদা ফারজানার মা রুবিনা আক্তার বক্তব্যে বলেন, বিদ্যালয়ের উপবৃত্তির নিয়ম-কানুন সম্পর্কে জানতে চান এবং বিদ্যালয়ের পুরাতন ভবনটি একটি ঝুঁকিপূর্ণ ভবন, তা সংস্কার করার জন্য দাবী করেন। এবং বার্ষিক পরীক্ষার ফলাফলের পর ছেলে-মেয়েদের পরীক্ষার নাম্বার পত্র দেওয়ার জন্য অনুরোধ জানান।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুর হোসাইন মায়েদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন। তিনি সকল মাকে বিদ্যালয়ে নিয়মিত আসার জন্য আহবান জানান এবং তাঁর সন্তানের লেখা-পড়ার খোঁজ-খবর রাখতে পরামর্শ দেন।
যে সকল শিক্ষার্থী পড়াশোনায় অমনোযোগী ও কিছুটা দুর্বল তাদের মায়েদেরকে আরো বেশী সচেতন হতে ও শ্রেণী শিক্ষকগণের সাথে সবসময় যোগাযোগ রাখতে বলেন।
অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি আলহাজ্ব নুরুল হুদা তাঁর বক্তব্যে উপবৃত্তির নিয়মকানুন, বিভিন্ন পরীক্ষার ফি, বিদ্যালয়ের পাঠদান সূচি, শিক্ষার্থীদের প্রতি শিক্ষক ও অভিভাবকদের দায়িত্ব ও কর্তব্যের বিষয়গুলি তুলে ধরেন।
Nurul hossain 19.02.16 (news 2pic) (2)বিদ্যালয়ের পাঠ কার্যক্রম বা অন্যান্য সেবা সম্পর্কে কোন অভিযোগ থাকলে তা প্রধান শিক্ষক বা পরিচালনা কমিটিকে জানাতে অথবা বিদ্যালয়ে স্থাপিত পরামর্শ ও অভিযোগ বক্সে লিখিতভাবে দিতে বলেন। তিনি আরো বলেন, বিদ্যালয় সম্পর্কিত সকল তথ্য মায়েদের জানতে হবে এবং সন্তানদের লেখা পড়ার উন্নতির জন্য বিদ্যালয়ের সাথে সার্বক্ষণিক যোগযোগ রাখতে হবে। তিনি সকল শিক্ষার্থীদেরকে স্কুল ড্রেস পড়ে বিদ্যালয়ে পাঠানোর জন্য মায়েদের কাছে আহবান জানান।
শিক্ষার মান উন্নয়নে শিক্ষক, অভিভাবক ও মায়েদের করণীয় সম্পর্কে বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয় পরিচালনার কমিটির অভিভাবক সদস্য মো. আলম বাহাদুর তিনি বলেন মা সমাবেশ, পরামর্শ ও অভিযোগ বক্স, সেবা সংক্রান্ত তথ্যবোর্ড, নিয়মিত এসএমসির সভা আয়োজন, বিদ্যালয়ের উন্নয়ন কার্যক্রমে অভিভাবক ও স্থানীয় জনগণের অংশগ্রহণ এ সকল কার্যক্রমের মধ্য দিয়ে যেমন উন্নত শিক্ষার পরিবেশ তৈরি হবে তেমনি স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার গ্রহণযোগ্য মানদন্ড অর্জনের দিকে বিদ্যালয়টি এগিয়ে যাবে।
তিনি আরো বলেন, এ জন্য তিনি সকলকে সম্মিলিত সহযোগিতার আহবান জানান। তিনি বিদ্যালয়ের পড়াশোনার মান উন্নয়ন ও বিদ্যমান বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

%d bloggers like this: