Home / প্রচ্ছদ / সাম্প্রতিক... / বিনোদন ও সাংস্কৃতিক / আমাদের চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রি হারিয়ে ফেলেছি: ফারুক

আমাদের চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রি হারিয়ে ফেলেছি: ফারুক

আকবর হোসেন পাঠান ফারুক। তিনি একাধারে চলচ্চিত্র অভিনেতা, প্রযোজক, ব্যবসায়ী, মুক্তিযোদ্ধা ও সাংসদ। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে সাড়া দিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন মুক্তি সংগ্রামে। তরুণ বয়স থেকেই তিনি জড়িত রাজনীতির সঙ্গে। খুব অল্প বয়সে আন্দোলন সংগ্রামে কাছ থেকে দেখেছেন জাতির জনককে। বিজয়ের ৪৯ বছর উপলক্ষে সময় নিউজের সঙ্গে একান্ত আলাপ করেছেন তিনি।

বুধবার (১৬ ডিসেম্বর) দুপুরে মুঠোফোনের আলাপে দর্শকপ্রিয় এ অভিনেতা জানান, স্ত্রীসহ করোনামুক্ত হয়েছেন তিনি। দুইবার করোনায় আক্রান্ত হয়ে সেরে উঠেছেন ফারুক। এজন্য সৃষ্টিকর্তার নিকট কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করতেও ভুলেননি এ অভিনেতা।

দেশ স্বাধীনের ৪৯ বছর হলো, কাঙ্ক্ষিত বাংলাদেশ পেয়েছেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে মিয়াভাই খ্যাত চিত্রনায়ক ফারুক বলেন, ‘আমরা যে চিন্তা নিয়ে যুদ্ধ করেছি সে চিন্তার মাথাটা প্রথম ভেঙে দেওয়া হয়েছিল ১৯৭৫ সালে। আমরা যা চেয়েছি সেটা মাঝপথে ভূলুণ্ঠিত হয়েছিল। বঙ্গবন্ধু দিয়ে গেছেন একটি দেশ, একটি দেশের পরিচয়, একটি ভাষায় পরিচয়। এই মহান নেতাকে আমি চোখের সামনে দেখেছি। তার নামটি এলেই আমি খুব মজা পাই এবং তার নামটি আমার বারবার বলতে ইচ্ছা করে।’

যোগ করে তিনি আরও বলেন, ‘বর্তমানে আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা যেভাবে উন্নয়ন করে যাচ্ছেন, দেশকে যেভাবে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন তাতে আমি মনে করি, আগামীতে কাঙ্ক্ষিত বাংলাদেশ পাওয়ার সম্ভাবনা আছে।’

বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা খুব তাড়াতাড়ি দেখবেন উল্লেখ করেন ফারুক আরও বলেন, ‘বাবা ঐটা কি? ব্রীজ। ব্রীজে কী হয়? গাড়ি ঘোড়া চলে, ট্রেন চলে। কে বানালো? শেখ হাসিনা।এই কথাগুলো একের পর এক আসবে তখন বুঝবেন সোনার বাংলা দেখতে খুব বেশি দেরি নেই। এটা আমাদের মানতেই হবে, শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। এটি হবেই ইনশাল্লাহ। আজ হোক আর কালই হোক।’

কাঙ্ক্ষিত চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রি পেয়েছেন? জানতে চাইলে ফারুক বলেন, ‘হারিয়ে ফেলেছি, হারিয়ে ফেলেছি। আমরা আমাদের চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রি হারিয়ে ফেলেছি। কাঙ্ক্ষিত বললে আমি বলব, আমরা হারিয়ে ফেলেছি। দেশ স্বাধীনের পর বঙ্গবন্ধু আমাদের যে চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রি দিয়ে গিয়েছিলেন সেটি অনেক বড় ছিল। সেটিকে আসলেই একটা ইন্ডাস্ট্রি মনে হতো। কিন্তু এখন ধীরে ধীরে কাদের কালো হাতের ছায়ায় এটা যেন সরে গেছে।’

তবে ফারুক বিশ্বাস করেন, ধীরে ধীরে এই ইন্ডাস্ট্রি আবার তার আগের জায়গায় আসবে। গুণী এ অভিনেতার ভাষায়, ‘আমি বুঝি, কালো হাতের ছায়া বেশি দিন আর থাকবে না। কাঙ্ক্ষিত ইন্ডাস্ট্রি পেতে গেলে আমাদের আরো অনেক চিৎকার করতে হবে। কষ্ট করতে হবে।’

১৯৭১ সালে চলচ্চিত্র জগতে পা রাখেন ফারুক। কবরী, ববিতা, সুচরিতা, সূচন্দা, রোজিনা, অঞ্জু ঘোষ, শাবানার সঙ্গে জুটিবদ্ধ হয়ে অভিনয়ে করেছেন একাধিক সিনেমায়। ক্যারিয়ারের স্বীকৃতি হিসেবে ১৯৭৫ সালে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার এবং ২০১৬ সালে আজীবন সম্মাননা অর্জন করেন তিনি। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের ইতিহাসে সবচেয়ে সফল ও সেরা নায়কদের একজন আকবর হোসেন পাঠান ফারুক।

 

 

সূত্র: somoynews.tv – ডেস্ক।

Leave a Reply

%d bloggers like this: