Home / প্রচ্ছদ / সাম্প্রতিক... / আলীকদমে সদর ইউপি সচিবের বিরুদ্ধে মেম্বারদের জিডি ও অভিযোগ

আলীকদমে সদর ইউপি সচিবের বিরুদ্ধে মেম্বারদের জিডি ও অভিযোগ

 

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, লামা :

বান্দরবান জেলার আলীকদম সদর ইউপি’র সচিব মানিক বড়ুয়ার বিরুদ্ধে অশালীন ভাষায় গাল-মন্দ, স্বী দায়িত্বে প্রতি অবহেলা ও নানান অনিয়মের বিষয়ের একই ইউনিয়নের ১২ জন ওয়ার্ড মেম্বার বান্দরবান জেলা প্রশাসকের কাছে অভিযোগ এবং ৪নং ওয়ার্ড মেম্বার আবু ছালাম নিরাপত্তা চেয়ে আলীকদম থানায় সাধারণ ডায়েরী করেছেন।

ইউনিয়নের ১২জন মেম্বার বান্দরবান জেলা প্রশাসকের কাছে করা অভিযোগে উল্লেখ করেন, সচিব মানিক বড়ুয়া পরিষদের অধিকাংশ সদস্যের সাথে খারাপ ব্যবহার করেন। ভিজিডি সহ অন্যান্য ত্রাণ কার্যক্রমে দু:স্থ মানুষকে বিতরণের সময় চাল কম দেয়। অনেক দূর্গমের মানুষরা প্রতিমাসে ত্রাণের চালের জন্য আসতে পারেনা। যখন কয়েক মাসের চালের জন্য আসেন তখন তাদের কাছ থেকে মাষ্টাররোলে স্বাক্ষর রাখে ঠিকমত কিন্তু ২/১ মাসের চাল কম দেয়। স্বল্পমূল্যের ১০ টাকা কেজি চালের কর্মসূচীতে ৪নং ওয়ার্ডের ৬টি কার্ড লুকিয়ে রাখে এবং নিজে চাল তুলে ফেলেন। এছাড়া জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধনে অতিরিক্ত ফিস আদায় ও হয়রাণী, মাতৃত্বকালীন ভাতা থেকে টাকা নেয়ার অভিযোগ তুলেন তারা। এই অভিযোগের বিষয়ে বান্দরবান জেলা প্রশাসন থেকে তদন্ত করতে সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. ইকতেখারুল ইসলামকে দায়িত্ব দেয়া হয়। পরে বিষয়টি আলোর মুখ দেখেনি বলে মেম্বাররা জানান।

আলীকদম থানায় দায়েরকৃত সাধারণ ডায়রী সূত্রে জানা গেছে, ইউপি সদস্য আবু ছালামের ৪ বছরের মেয়ে মরিয়ম জান্নাত নিহা ও দেড় বছরের মেয়ে শিপা এর জন্মনিবন্ধন করার আবেদন করে। কিন্তু সচিব মানিক বড়ুয়া জন্মনিবন্ধন কার্ড দিতে গড়িমসি করে আসছে। একই সঙ্গে জন্ম নিবন্ধন করা আবেদনের সাতজনকে জন্মনিবন্ধন কার্ড দিয়ে দিলেও ইউপি সদস্য আবু ছালামের মেয়ের জন্মনিবন্ধন কার্ড না দেওয়ায় উভয়ে তর্কে জড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে ইউপি সচিব মানিক বড়ুয়া চেয়ার থেকে উঠে মারধর করতে তেড়ে আসে এবং অশালীন গালমন্দ করে ভীষণ মান-সম্মানের ক্ষতি হয় বলে ডায়রীতে উল্লেখ করেন।

এ বিষয়ে আলীকদম সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ জামাল উদ্দিন সাংবাদিককে বলেন, ইউপি মেম্বার আবু ছালামের মেয়ের জন্ম নিবন্ধন কার্ড নিয়ে সচিব মানিক বড়ুয়া গড়িমসি করায় এ সমস্যার সৃষ্টি হয়। তবে এ বিষয়ে ইউপি মেম্বার আবু ছালামকে সচিব মানিক বড়ুয়া মারধর করতে তেড়ে আসা ও অপমান করার বিষয়ে আমি অবগত হয়েছি। বিষয়টি কয়েক দিনের মধ্যে উভয় পক্ষকে নিয়ে বসে সমাধান করে দেওয়ার চেষ্টা করবো।

ইউপি সদস্য আবু ছালামের আলীকদম থানায় দায়ের করা জিডির বিষয়ে ইউপি সচিব মানিক বড়ুয়া বলেন, মেম্বার আবু ছালাম তার দু’মেয়ের জন্মনিবন্ধন কার্ড ইস্যুর জন্য সরকারী নিয়ম অনুযায়ী পরিষদ থেকে ইউএনও আলীকদম বরাবরে পাঠিয়েছি। এখনো ইস্যু না হয়ে আসায় ইউপি মেম্বার আমার উপর ক্ষেপে যায়। আমি গত ৮ আগষ্ট এ বিষয়ে আলীকদম ইউএনও বরাবরে মেম্বার আবু ছালামের বিরুদ্ধে অভিযোগ দিয়েছি।

ইউপি মেম্বার আবু ছালাম বলেন, ইউপি সচিব মানিক বড়ুয়া মায়ানমারের নাগরিকদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে জন্মনিবন্ধন ও ভোটার তালিকায় অর্ন্তভূক্তির সহায়তা করার অহরহ প্রমান আছে।

এ বিষয়ে আলীকদম থানার অফিসার ইনচার্জ কাজী সাইদুর রহমান বলেন, আলীকদম সদর ইউনিয়ন পরিষদের ৪নং ওয়ার্ডের সদস্য আবু ছালামের সচিবের বিরুদ্ধে ও সচিব মানিক বড়ুয়া মেম্বারের বিরুদ্ধে সাধারণ ডায়েরী করেছে। দায়েরকৃত জিডি দুইটি তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: