Home / প্রচ্ছদ / সাম্প্রতিক... / চকরিয়ায় খালেদা জিয়ার পর নির্বাচনী শো-ডাউনে সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

চকরিয়ায় খালেদা জিয়ার পর নির্বাচনী শো-ডাউনে সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

এ দেশে যারা আন্দোলনে বিজয়ী হতে পারেনি তারা নির্বাচনেও বিজয়ী হতে পারবেনা

 

মুকুল কান্তি দাশ; চকরিয়া :

মানবিক সফরের ব্যানারে খালেদা জিয়ার নির্বাচনী শো-ডাউনের রেশ না কাটতেই আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের দক্ষিণ চট্টগ্রাম সফরকে ঘিরে দলীয় নেতাকর্মীরা নড়েচড়ে উঠেছে। বিএনপি’র প্রধান ও আওয়ামীলীগের দ্বিতীয় নেতার আগমনে ব্যাপক সাড়া মেলে সংসদীয় আসন কক্সবাজার-১ চকরিয়া-পেকুয়ায়।

শনিবার সকালে সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের মরহুম আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবুর স্মরণ সভায় যোগ দেন। আনোয়ারায় আয়োজিত ওই সভা থেকে সড়ক পথে তিনি কক্সবাজার যাবেন। পথে কেরানীহাট, লোহাগাড়া, হারবাং ও চকরিয়া পৌরশহরের বাস টার্মিনাল ও ঈদগাঁও ও রামু স্টেশনসহ বিভিন্ন স্থানে আওয়ামীলীগ আয়োজিত পথসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন। পথসভাগুলোর মধ্যে সমাবেশে রুপ পেয়ে সবচেয়ে বড় জমায়েত হয় চকরিয়া পৌরশহরের শহীদ আবদুল হামিদ বাস টার্মিনালে। চকরিয়া উপজেলা ও পৌরসভা আওয়ামীলীগ এ সভার আয়োজন করেন।

সভায় চকরিয়ার একটি পৌরসভা ও ১৮টি ইউনিয়ন ছাড়াও পেকুয়ার ৭টি ইউনিয়ন থেকে আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, সেচ্ছাসেবকলীগ, ছাত্রলীগ, কৃষকলীগ, শ্রমিকলীগসহ দলটির আরো বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা ব্যানার-পেস্টুন ও প্লেকার্ড এবং রকমারি নৌকায় মাথায় নিয়ে সমাবেশে যোগ দেন। এসময় হাজারো কর্মীর শ্লোগানে প্রকম্পিত হয় পৌরশহর।

বাস টার্মিনালের সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে বলেন, যারা এ দেশে আন্দোলনে বিজয়ী হতে পারেনি তারা নির্বাচনেও বিজয়ী হতে পারবেনা। বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া মুখে ইসলামের কথা বললেও অন্তরে তিনি ইসলাম বিদ্বেষী। শনিবার রাত সাড়ে ৮টায় চকরিয়া পৌরশহরস্থ শহীদ আবদুল হামিদ বাস স্টেশন চত্তরে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, চকরিয়ার মানুষ এখন আর আগের মতো বোকা নয়। তারা উন্নয়ন বুঝে। তাই বিশ্বনেত্রী শেখ হাসিনা যেভাবে উন্নয়ন করছেন সে উন্নয়নের ভাগিদার হতে চকরিয়া-পেকুয়ায় যে প্রার্থীকে মনোনয়ন দেবেন তাকেই ভোট দিয়ে বিজয়ী করবেন।

তিনি আরো বলেন, এখন ছাত্র-ছাত্রীদের আবেদন ফরম পূরণ, কলেজে ভর্তিসহ নানা কাজে শহরে যেতে হইনা। নিজ এলাকায় বসেই অনলাইনের মাধ্যমেই সব কাজ করছেন। এ অবদান শেখ হাসিনা ও তার সুযোগ্য সন্তান জয়ের। তাই মানুষের ভাগ্য উন্নয়ন ও দেশের উন্নয়নের জন্য শেখ হাসিনাকে আবারো ক্ষমতায় আনতে হবে। এক পর্যায়ে তিনি চকরিয়া-পেকুয়ার প্রার্থী নিয়ে বলেন যার বেশি জন সমর্থন রয়েছে তাকেই শেখ হাসিনা মনোনয়ন দেবেন। একথা বলার সাথে সাথেই হাজার হাজার জনতা জাফর ভাইকে মনোনযন দেয়ার দাবিতে শ্লোগান শুরু করেন।

চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জাফর আলমের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন চৌধুরীর সঞ্চালনায় সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব-উল আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক এ.কে এম এনামুল হক শামীম, সাবেক ছাত্রনেতা মাহাফুজুল হায়দার চৌধুরী রোটন, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এ্যাডভোকেট সিরাজুল মোস্তাফা, সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান চেয়ারম্যান।

বক্তব্য রাখেন-চকরিয়া পৌরসভার মেয়র মো.আলমগীর চৌধুরী, জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান জাহেদুল ইসলাম লিটু, মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বাবলা, সাধারণ সম্পাদক মহসিন বাবুল চেয়ারম্যান, কাকারা ইউপি চেয়ারম্যান শওকত ওসমান, কোনাখালী ইউপি চেয়ারম্যান দিদারুল হক সিকদার, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কাউছার উদ্দিন কছির, পৌর যুবলীগের সভাপতি হাছনগীর হোছাইন, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আরিফুল ইসলাম চৌধুরী প্রমুখ।

এর আগে চট্টগ্রামের সাতকানিয়া-লোহাগাড়ার কয়েকটি পয়েন্ট ছাড়াও চকরিয়ার প্রবেশ মুখ হারবাং ইনানী রিসোর্ট এলাকায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সেতু মন্ত্রী। জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সালাহউদ্দিন আহমদ সিআইপির নেতৃত্বে আয়োজিত ওই পথসভায় ছিলেন- জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এ্যাডভোকেট সিরাজুল মোস্তাফা, সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান চেয়ারম্যান, জেলা আওয়ামীলীগ নেতা এ্যাডভোকেট আমজাদ হোসেন, রেজাউল করিম, এটিএম জিয়াউদ্দিন চৌধুরী জিয়া, কমরউদ্দিন আহমদ, খালেদ মোহাম্মদ মিতুন, মুজিবুর রহমান, আশরাফুল ইসলাম সজীব প্রমুখ।

এদিকে, সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেল রবিবার সকাল সাড়ে ১১টায় উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ত্রাণ বিতরণ ও সোলার প্যানেল স্থাপন উদ্বোধন করবেন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: