Home / প্রচ্ছদ / সাম্প্রতিক... / অপরাধ, আইন-আদালত / চকরিয়ায় জনতার পিটুনিতে ডাকাত নিহত

চকরিয়ায় জনতার পিটুনিতে ডাকাত নিহত

মুকুল কান্তি দাশ; চকরিয়া :

কক্সবাজারের চকরিয়ায় জনতার পিটুনিতে মো.রোকন উদ্দিন (২৬) নামের এক ডাকাত নিহত এবং ওয়াজ উদ্দিন (২৫) নামের অপর ডাকাত গুরুতর জখম হয়েছেন। এসময় তাদের কাছ থেকে একটি এলজি ও একটি গ্রিল কাটার ছুরি উদ্ধার করা হয়। বৃহস্পতিবার ভোর ৩টার দিকে চকরিয়া পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডস্থ আমাইন্যারচর এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

নিহত ডাকাত মো.রোকন উদ্দিন উপজেলার পূর্ব ভেওলা ইউনিয়নের সেকান্দর পাড়ার মৃত জাফর আলম মেম্বারের ছেলে ও আহত ওয়াজ উদ্দিন একই ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডস্থ লালপুর ঈদমণি এলাকার শামসুল আলমের ছেলে।

স্থানীয় বাসিন্দা ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বেশ কয়েকদিন আগে বিদেশ থেকে দেশে ফিরে চকরিয়া পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা সাহাবউদ্দিন। কয়েকদিন পরই তার বিয়ে হওয়ার কথা রয়েছে। সেজন্য তিনি বিদেশ থেকে বেশ কিছু স্বর্ণালংকারসহ দামী জিনিসপত্র নিয়ে এসেছেন। এ খবর পেয়ে ৫-৬জনের সশস্ত্র একদল ডাকাত বৃহস্পতিবার ভোর রাতে সাহাবউদ্দিনের বাড়িতে হানা দেয়। বাড়িতে ডাকাত এসেছে বুঝতে পেরে চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করে পরিবারের লোকজন। এসময় আশপাশের এলাকার লোকজন এগিয়ে আসলে অন্য ডাকাতরা পালিয়ে গেলেও  রোকন উদ্দিন ও ওয়াজ উদ্দিনকে ধরে গণপিটুনি দেয় স্থানীয় লোকজন।

চকরিয়া থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) মো.জাহাঙ্গীর আলম বলেন, গণপিটুনি দেয়ার পর রাতেই স্থানীয় লোকজন দুইজনকে গুরুতর জখম অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসে। এসময় রোকন উদ্দিন মারা যায়। অপর আহত ওয়াজউদ্দিন হাসপাতালে ভর্তি আছে। নিহতের প্রাথমিক সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করা হয়েছে।

চকরিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো.মিজানুর রহমান বলেন, গণপিটুনিতে নিহত ও আহতের বিরুদ্ধে থানায় ডাকাতি মামলা রয়েছে। তবে কি পরিমাণ মামলা রয়েছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ঘটনাস্থ থেকে একটি এলজি ও গ্রিল কাটার জন্য ব্যবহৃত একটি কাটার মেশিনও উদ্ধার করা হয়েছে।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এঘটনায় পুলিশ বাদি হয়ে মামলা দায়ের করবে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: