Home / প্রচ্ছদ / সাম্প্রতিক... / জাতীয় / ছয় ঘণ্টা অপারেশনে আলাদা হলো সেই জোড়া শিশু

ছয় ঘণ্টা অপারেশনে আলাদা হলো সেই জোড়া শিশু

অপারেশনের আগে গাইবান্ধার জোড়া শিশু তৌফা ও তহুরা। ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ছয় ঘণ্টার জটিল অস্ত্রোপচারের মধ্য দিয়ে আলাদা করা হয়েছে গাইবান্ধার জোড়া শিশু তৌফা ও তহুরাকে।

১ আগস্ট মঙ্গলবার বেলা আড়াইটার দিকে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের শিশু সার্জারি বিভাগের অধ্যাপক কানিজ হাসিনা শিউলি।

এর আগে মঙ্গলবার সকাল ৭টায় শিশু দুইটিকে তাদের মা সাহিদা বেগম বোর্ডের চিকিৎসকদের নির্দেশক্রমে ঢামেক হাসপাতালের কেবিন ব্লক থেকে জরুরি বিভাগের ৩য় তলায় নিউরোসার্জারি অস্ত্রোপচার কক্ষে নিয়ে যান।

এরপর সকাল ৮টায় অস্ত্রোপচার শুরুর পর বেলা আড়াইটার দিকে বেরিয়ে অধ্যাপক কানিজ হাসিনা শিউলি বলেন, ‘ওরা দুজন এখন আলাদা। দুজনের অবস্থাই স্থিতিশীল। এখনও কিছু রিপেয়ারের কাজ বাকি আছে। আরও দুই-তিন ঘণ্টা সময় আমাদের লাগবে।’

প্রসঙ্গত, গত বছরের ২৯ সেপ্টেম্বর গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার দহবন ইউনিয়নের কৃষক রাজু মিয়া ও তার স্ত্রী শাহিদা বেগমের ঘরে জোড়া লাগানো শরীর নিয়ে জন্ম নেয় তৌফা ও তহুরা। তাদের পিঠের দিক থেকে কোমরের নিচ পর্যন্ত মেরুদণ্ডের হাড় সংযুক্ত ছিল। মাথা-হাত-পা আলাদা হলেও তাদের মলদ্বার ছিল একটি।

৩১ জুলাই সোমবার সকাল ১১টার দিকে ঢামেকের পুরাতন ভবনের দ্বিতীয় তলার সার্জারির বিভাগের সভা কক্ষে জোড়া শিশু দুইটির অস্ত্রোপচারের বিষয়ে এক সংবাদ সম্মেলন করেন চিকিৎসকেরা।

অস্ত্রোপচারের জন্য গঠিত মেডিকেল বোর্ডের প্রধান শিশু সার্জারি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক সাহনূর ইসলাম বলেন, জোড়া শিশু দু’টির অস্ত্রোপচারে কিছু জটিলতাও রয়েছে। তাদের জোড়া লাগানো ইস্পাইনাল কট (মেরুদন্ড) আলাদা করা হবে। যদি এটি লিকেজ না হয় তাহলে সমস্যা হবে না।

তিনি আরও জানান, অস্ত্রোপচারের পর তাদের পায়খানা-প্রস্রাব ও হাত-পা নড়াচড়া বন্ধ হয়ে যাবে কিনা তা নিয়ে কিছুটা শংকা রয়েছে। তবু আমরা শতভাগ আশাবাদী যে তাদের তেমন কোনো ধরনের সমস্য হবে না। যদিও বা হয়, তা মোকাবেলার জন্য আমরা প্রস্তুত থাকবো।

সূত্র:আয়েশা সিদ্দিকা শিরিন/priyo.com,ডেস্ক।

Leave a Reply

%d bloggers like this: