Home / প্রচ্ছদ / সাম্প্রতিক... / অপরাধ, আইন-আদালত / মুমুর্ষূ অবস্থায় এক ইয়াবাকারবারী উদ্ধার : টেকনাফ থানা পুলিশের হাতে ধরা পড়ল শীর্ষ আবদুল হাকিম ডাকাতের ৩ সহযোগী

মুমুর্ষূ অবস্থায় এক ইয়াবাকারবারী উদ্ধার : টেকনাফ থানা পুলিশের হাতে ধরা পড়ল শীর্ষ আবদুল হাকিম ডাকাতের ৩ সহযোগী

ফাইল ফটো

গিয়াস উদ্দিন ভুলু, টেকনাফ :

কক্সবাজারের টেকনাফে এক ইয়াবা কারবারীকে অপহরণ করতে গিয়ে জনতা ও পুলিশের জালে আটকা পড়ল শীর্ষ রোহিঙ্গা ডাকাত আব্দুল হাকিমের তিন সহযোগী। আটককৃতরা হচ্ছে, টেকনাফ পৌরসভা পুরাতন পল্লান পাড়া এলাকার লাল মিয়ার ছেলে জাহেদ (১৯), মধ্যম জালিয়া পাড়ার আবু হানিফের ছেলে ও সম্প্রতি র‌্যাবের হাতে আটক ডাকাত ফরিদুল আলমের ভাগিনা জালাল উদ্দিন (২৭) এবং একই এলাকার আবুল বশরের ছেলে মোঃ আবছার (২১)।

এই অভিযানে টেকনাফ থানা পুলিশ সদস্যরা ইয়াবা কারবারী কুমিল্লা মুরাদনগর নয়াকান্দি এলাকার আকবর হোসেনের পুত্র আবদুল মান্নানকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়।

টেকনাফ পুলিশ সুত্রে জানা যায়, ১৪ আগস্ট সোমবার ভোর রাতে টেকনাফ পৌরসভার পুরাতন পল্লান পাড়া এলাকা থেকে স্থানীয় জনতার সহযোগীতায় এই ডাকাত দলের সদস্যদেরকে আটক করতে সক্ষম হয় পুলিশ।

জানা যায়, পুরাতন পল্লান পাড়ার ইয়াবা ব্যবসায়ী দম্পতি পুতিয়া ও পুতিনির বাড়িতে অবস্থান করে বেশ কিছুদিন ধরে ইয়াবা কারবার করে আসছিল ভিকটিম আব্দুল মান্নান। কয়েকদিন আগে এ মান্নান এদের বাড়িতে অবস্থান করে ইয়াবা নিয়ে পুতিনিকে পাঠায় চট্টগ্রামের অপর এক ইয়াবা কারবারীর কাছে। এরপর থেকে পুতিনির আর খোজঁ পাচ্ছিল না স্বামী পুতিয়া। এরই  জের ধরে শীর্ষ রোহিঙ্গা ডাকাত আবদুল হাকীম ডাকাত দলের মাধ্যমে তাকে অপহরণের চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে ভিকটিমের আত্মচিৎকারে পাশ্ববর্তী লোকজন এগিয়ে এলে আবদুল হাকিম ডাকাতের তিন সহযোগীকে ধরে পুলিশে খবর দেয় স্থানীয় জনতা। এরপর টেকনাফ মডেল থানার এসআই মহির খানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ এদেরকে থানা নিয়ে আসে।

পুলিশের তথ্যে আরো জানা যায়, গত ৮ আগস্ট সোমবার রাতে র‌্যাব ৭’র একটি টিম ঐ এলাকা থেকে ১৭টি অস্ত্র ও ৪৪২ রাউন্ড গুলিসহ আব্দুল হাকিমের দুই সহযোগী ফরিদ আলম ও শামসুল আলমকে আটক করে। ঐ মামলায় তাদেরকে আটক দেখিয়ে আদালতে প্রেরন করা হবে বলে জানা গেছে। অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মাইন উদ্দিন খান জানান, ধৃতরা রোহিঙ্গা ডাকাত আব্দুল হাকিমের সহযোগী। তাদেরকে র‌্যাবের দায়ের করা মামলায় পলাকত আসামী হিসাবে আটক করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, শীর্ষ ডাকাত আবদুল হাকিমের অন্যান্য সহযোগীদের ধরতে পুলিশ সদস্যদের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: