Home / প্রচ্ছদ / সাম্প্রতিক... / লামায় ভূমি বিরোধের জের ধরে প্রান্তিক কৃষকের বিষপান

লামায় ভূমি বিরোধের জের ধরে প্রান্তিক কৃষকের বিষপান

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম; লামা :

বান্দরবানের লামা উপজেলার রুপসীপাড়ায় ভূমি বিরোধের জের ধরে বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে সোনা মিয়া (৪২) নামে এক প্রান্তিক চাষী। প্রতিবেশীর সাথে দীর্ঘদিন ধরে চলা ভূমি বিরোধ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও গণ্যমান্য ব্যাক্তির কাছে মিমাংসার জন্য বারবার ধরনা দিয়েও প্রতিকার না পাওয়ায় বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন বলে জানালেন প্রান্তিক চাষীর স্ত্রী হালিমা বেগম।

সে রুপসীপাড়া ইউনিয়নের কলাঝিরি পাড়ার মৃত ভেলু শেখ এর ছেলে। শুক্রবার (৩ অক্টোবর) দিবাগত রাতে খইহ্লাচিং মার্মা পাড়া সংলগ্ন কলা বাগানে বিষপান করলে স্থানীয়রা দ্রুত উদ্ধার করে তাকে লামা হাসপাতালে ভর্তি করে।

জানা গেছে, জন্মলগ্ন থেকে পৈত্রিক ভিটায় বসবাস করছে। তার বাড়ির পার্শ্ববর্তী জনৈক লতিফ মাষ্টার ও তার ভাই, ছেলেরা সোনামিয়ার জায়গা জমি অবৈধভাবে দখলের চেষ্টা চালায়। এবিষয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যান মেম্বাররা মিমাংসা করে দিলেও লতিফ মাষ্টার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের কথা অমান্য করে তার বাগান ও বাড়ি জবরদখলের চেষ্টা অব্যাহত রাখে।

নাম প্রকাশ না করা সত্ত্বেও স্থানীয় কয়েকজন বলেন, জনপ্রতিনিধিরা মুখে বললেও ভিতরে লতিফ মাষ্টারের পক্ষে কাজ করায় সোনা মিয়ার বিষয়টি মিমাংসা হচ্ছেনা। মাস খানিক আগেও লতিফ মাষ্টারের পরিবারের অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে সে স্ত্রী সন্তান সহ আত্মহত্যা করবে বলে কাপনের কাপড় নিয়ে বাড়ি ঘর ফেলে চলে আসে। তখন এলাকার সবাই তাকে বুঝিয়ে পুণরায় বাড়িতে পাঠায়। সেই কাপনের কাপড় ও দড়ি স্থানীয় গণ্যমান্যদের কাছে জমা রয়েছে।

সোনা মিয়ার স্ত্রী হালিমা বেগম জানান, আমার স্বামী তাদের অত্যাচার ও সুস্থ সমাধান না পাওয়ায় বিষপান করেছে। সে এখন লামা হাসপাতালে মুমূর্ষু অবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এবিষয়ে লতিফ মাষ্টার বলেন, আমরা যে জায়গা দাবী করছি তা খাস। সোনা মিয়া অতিরিক্ত জায়গা দখলে আছে। স্থানীয় ইউপি মেম্বার আব্দুল মান্নান বলেন, আমি লামার বাইরে আছি। এসে বিষয়টা সমাধান করব।

লামা হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ শফিকুর রহমান মজুমদার বলেন, সোনা মিয়া বিষপান জনিত কারণে লামা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: