Home / প্রচ্ছদ / উখিয়ার পাঁচটি ষ্টেশনের সড়কের উভয় পাশে হাট-বাজার : তীব্র যানজট

উখিয়ার পাঁচটি ষ্টেশনের সড়কের উভয় পাশে হাট-বাজার : তীব্র যানজট

উখিয়ার পাঁচটি ষ্টেশনের সড়কের উভয় পাশে হাট-বাজার : তীব্র যানজট

রফিক মাহামুদ, কোটবাজার:

কক্সবাজার-টেকনাফ মহাসড়কের উখিয়া উপজেলার ৫ টি বাসষ্টেশনের সড়কের লাগোঁয়া এবং ফুটপাতের উপর প্রতিনিয়ত হাটবাজার বসার কারনে যানজট লেগেই থাকে সবসময়। সড়কের দুই পাশে ঝুপড়ীঘর তৈরী করে বিকিকিনি করায় যানবাহন চলাচলে প্রতি বন্ধকতা সৃষ্টি হয়। এতে গাড়ির যাত্রী ও জনসাধারণের ও ভোগান্তি পোহাতে হয়। বিশেষ করে বাণিজ্যক ব্যস্ততম জনবহুল ষ্টেশন কোটবাজার ষ্টেশনে ট্রাফিক পুলিশ থাকলেও উপজেলার অন্যান্য জনবহুল গুরুত্বপূর্ণ ষ্টেশন সমূহে ট্রাফিক পুলিশ না থাকায় অসহনীয় যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। সরেজমিনে দেখা যায় কক্সাবাজার টেকনাফ সড়কের উখিয়া উপজেলার মরিচ্যা বাজার, কোটবাজার, উখিয়া সদর, থাইংখালী ও পালংখালী বাস ষ্টেশনের আরকান সড়কের লাগোঁয়া ফুটপাতের উপর প্রতিদিন হাটবাজার বসে কাঁচামাছ, কাচামাল লাকড়ী, তৈরীতরকারী সহ বিভিন্ন ভোগ্যপণ্য ও হরেক রকমের পণ্য সামগ্রী বেচা বিক্রি হয় সকাল থেকে রাত ৯/১০ টা পর্যন্ত। এছাড়া এসব বাস ষ্টেশনের উভয় পাশে ঝুপড়ীঘর তৈরী করে চায়ের দোকান, পানের দোকান, ফলের দোকানসহ খাবারের দোকানের মত করে নানা আইটেমের মালামাল বিক্রি করছে দেদারছে।

৫টি বাস ষ্টেশনের উভয় পাশে পাঁচ শতাধিক অবৈধ ঝুপড়িঘর গড়ে উঠে। এতে করে সড়কে চলাচলকারী যানবাহন বাস, মিনিবাস, ট্রাক, পিক কাপ, মাইক্রোবাস, পর্যটনবাহী গাড়ী চাঁদের গাড়ী (জীপ), সিএনজি, কার, নোহা সহ বিভিন্ন যানবাহন রাস্তায় একটি অপরটিকে পাশ কাটিয়ে যাওয়ার সুযোগ থাকে না, যান চলাচলের প্রতিবন্ধকতা দেখা দেয়। ফলে যানজট সৃষ্টি হয় এবং দীর্ঘক্ষণ যানজট লেগে থাকে, বিশেষ করে উপজেলার ব্যস্ততম জনবহুল ও বাণিজ্যিক কোটবাজার বাস ষ্টেশনটি ৪টি ইউনিয়নের চৌরাস্তার মুখ, সোনর পাড়া, ইনানী, হলদিয়া পালং, রত্নাপালং, রাজাপালংয়ের যানবাহনকে এই ষ্টেশন হয়ে চলাচল করতে হয়। এখানে যানজট লাগলে সহজেই মুক্ত হয় না, দীর্ঘক্ষণ লেগে থাকে। এছাড়াও উখিয়া সদর বাস ষ্টেশনেও একই অবস্থার সৃষ্টি হয়। সড়কের পাশের ফুটপাত সী-লাইন, কক্সলাইন, সিএনজি, মাইক্রোবাস, রিক্সা, টম টম চালকদের দখলে থাকায় যাতায়তকারী যানবাহন গুলো আরও বেকাদায় পড়ে। এসব কারনে সড়ক দুর্ঘটনাও ঘটেছে। যানবাহন চালকরা গাড়ী নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দুর্ঘটনা কবলিত হয়।

কোটবাজার বণিক কল্যাণ সমবায় সমিতি সাধারণ সম্পাদক মোঃ আলমগীর এ প্রসঙ্গে বলেন, কোটবাজার কয়েকটি ইউনিয়নের সংযোগস্থল বাণিজ্যিক এলাকা হওয়াতে গুরুত্ব বেশী। সড়কের পাশে পথচারীদের ফুটপাতের উপর পণ্য সামগ্রী বেচা বিক্রি হওয়া এবং ঝুপড়ীঘর সীলাইন, কক্সলাইন, টমটম, টাটা গাড়ী, সিএনজি ও রিক্সার দখলে থাকায় অসহনীয় যানজট সৃষ্টি হয়। পাঁচটি ষ্টেশনের মধ্যে শুধুমাত্র কোটবাজারেই একজন দক্ষ টিএসআই ও ট্রাপিক পুলিশ নিয়োগ দেওয়া হয়েছে তারা নিজেদের দক্ষতা ও যোগ্যতা দিয়ে নিজেদের দ্বায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে। তারা কর্মস্থলে যতক্ষণ থাকেন ততক্ষণ যানজট না থাকলেও তাদের অনুপস্থিতে যানজটের তীব্র আকার ধারণ করে। আর এ যানজটের মূল কারণ হচ্ছে শত শত ব্যাটারি চালিত টমটম, এই গাড়ীগুলো সড়কে আসার পর থেকে দেশের বিদ্যুতের যেমন বারটা বাজাচ্ছে তেমনি ট্রাফিক আইন অমান্য করে চলাচল করে চলেছে হরদম।

উখিয়া উপজেলায় প্রায় ৫শতাধিক টমটম বেপরোয়া ভাবে বিভিন্ন সড়ক উপসড়কে চলাচল করলেও প্রশিক্ষিত কোন চালক নেই, যার ফলে প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনার মত মারাত্মক পরিস্থিতি সৃষ্টি হচ্ছে বলে সচেতন মহলের অভিমত।

Share

Leave a Reply

Advertisement

x

Check Also

https://coxview.com/wp-content/uploads/2023/01/BGB-Rafiq-24-1-23.jpeg

বিপুল পরিমাণ পপিক্ষেত ধ্বংস করল বিজিবি

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম; লামা-আলীকদম : পার্বত্য জেলা বান্দরবানে থানচি উপজেলা গহীণ অরণ্যে মাদক দ্রব্য প্রস্তুতকারক ...

%d bloggers like this: