শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০৩:১১ অপরাহ্ন

চকরিয়া-মহেশখালী সড়কের মাতামুহুরী নদীর উপর নির্মিত বাটাখালী সেতু উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

Shekh Hasianমুকুল কান্তি দাশ, চকরিয়া:

আওয়ামীলীগের নেতৃত্বাধীন সরকার যখনই ক্ষমতায় আসে তখনই দেশের উন্নয়নে কাজ করে। বর্তমান সরকার মানুষের যোগাযোগ ব্যবস্থার আমুল পরিবর্তনে কাজ করে যাচ্ছে। যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে এসব সেতু যাতায়াত ব্যবস্থাকে সহজ করার পাশাপাশি দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও পর্যটন শিল্পে ব্যাপক পরিবর্তন আনবে। আমরা দেশবাসীর কাছ অঙ্গিকার করেছিলাম বাংলাদেশকে ডিজিটাল বাংলাদেশে রুপান্তরিত করবো সেই লক্ষ্য ইতোমধ্যে বাস্তবায়িত হয়েছে। বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হতে যাচ্ছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ৬টি জেলার ৯টি গুরুত্বপূর্ণ সেতু উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন। এসময় তিনি কক্সবাজারের চকরিয়া-মহেশখালীবাসীর বহুল প্রতিক্ষিত মাতামুহুরীর নদীর উপর নির্মিত বাটাখালী সেতুরও শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

এসময় গণভবনে উপস্থিত ছিলেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবাইদুল কাদের এমপি, মন্ত্রণালয়ের সচিব, চীনের রাষ্ট্রদূতসহ সড়ক ও পরিবহন বিভাগের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

চকরিয়া-মহেশখালী সংযোগ সড়কের মাতামুহুরী নদীর উপর নির্মিত বাটাখালী সেতুটি উন্মুক্ত করে দেয়ায় চকরিয়ার উপকূলীয় সাত ইউনিয়নসহ দ্বীপ উপজেলা মহেশখালীর ৭ লক্ষাধিক মানুষ সড়ক যোগাযোগে দীর্ঘদিনের দূর্ভোগ থেকে মুক্তি পাবে। এতে কক্সবাজারের চকরিয়া-মহেশখালীর জনগণের মাঝে আনন্দের হিল্লোল বইছে।

Mukul - Chakaria 20.08.2015 (1)সড়ক ও জনপথ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘ কয়েকবছর থেমে থেমে ও গত ডিসেম্বর থেকে গত জুন মাস নাগাদ টানা কাজ করে মাতামুহুরী নদীর উপর বাটাখালী সেতুটির নির্মাণকাজ সম্পন্ন করা হয়। ১৭০ দশমিক ৭৮ মিটার দৈর্ঘ্যের সেতুটি নির্মাণ করতে ব্যয় হয়েছে ১১ কোটি ৯৫ লাখ টাকা।

এ সেতু বৃহস্পতিবার উদ্বোধনের পর খুলে দেয়ায় চকরিয়ার সাহারবিল, পূর্ব বড় ভেওলা, বিএমচর, পশ্চিম বড় ভেওলা, কোণাখালী, ঢেমুশিয়া, বদরখালী ও দ্বীপ উপজেলা মহেশখালীর ৭ লক্ষাধিক মানুষ উপকৃত হবে। সবচেয়ে বেশী লাভবান হবেন কৃষকরা। স্থানীয়ভাবে উত্পাদিত ফসল পরিবহন সমস্যার কারণে ন্যায্যমূল্য পাওয়া থেকে বঞ্চিত হয়ে আসছিলো লাখো কৃষক পরিবার। তাই কৃষকদের মাঝেই সবচেয়ে বেশী আনন্দ ছড়িয়ে পড়েছে বাটাখালী সেতুটি উদ্বোধন হওয়ায়।

সাহারবিল এলাকার কৃষক আবদুল কাদের বলেন, বাটাখালী সেতুটি দীর্ঘদিন ধরে লক্কর-ঝক্কর অবস্থায় ছিলো। যার কারণে আমাদের উত্পাদিত কৃষিজপণ্য সঠিক সময়ে সরবরাহ করতে পারিনি। এখন ব্রীজটি বড় ও কংক্রিটের হওয়ায় আমাদের উত্পাদিত পণ্য সহজেই বিভিন্ন জায়গায় পৌঁছানো সহজ হবে।

https://www.facebook.com/coxviewnews

Design BY Hostitbd.Com