Home / প্রচ্ছদ / মিয়ানমার থেকে আরও ১৯২ টন পেঁয়াজ আমদানী

মিয়ানমার থেকে আরও ১৯২ টন পেঁয়াজ আমদানী

Teknaf pic(p)_31. 08নিজস্ব সংবাদদাতা, টেকনাফ:

টেকনাফ স্থল বন্দর দিয়ে মিয়ানমার থেকে আরোও ১৯২ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানী হয়েছে। ২ সেপ্টেম্বর বুধবার বিকালে মিয়ানমার থেকে পেঁয়াজ বোঝাই ট্রলার টেকনাফ স্থল বন্দরে ভীড়ে। বন্দরে খালাসের পর সন্ধায় কিছু পেঁয়াজ দেশের আভ্যন্তরীন বাজারে সরবরাহ করা হয়েছে।

অবশিষ্ট পেঁয়াজ বৃহস্পতিবার বাজারে প্রবেশ করবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

আমদানীকারক প্রতিষ্ঠান মাহী এন্ড ব্রাদার্স ও জিয়াবুল এন্টারপ্রাইজ ৯৬ মেট্রিক টন করে ১৯২ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানী করে।

মাহী এন্ড ব্রাদার্সের স্বত্বাধিকারী ব্যবসায়ী এম.এ হাশেম জানান, বাজারে পেঁয়াজের দাম পড়তির দিক, সামনে আর পেঁয়াজের দাম বাড়বে বলে মনে হয়না। এছাড়া মিয়ানমার থেকে প্রচুর পেঁয়াজ আমদানীর অপেক্ষায় রয়েছে বলে জানান তিনি। এর আগে ১৩ তারিখ ১২৫ মেট্রিক ট্রন ও ৩১ তারিখ ৩৫ মেট্রিক টন পেঁয়াজের চালান আমদানী করেছিল ব্যবসায়ীরা।

এদিকে মিয়ানমার থেকে টেকনাফ স্থল বন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানী হলেও টেকনাফের স্থানীয় বাজারে এখনও এর কোন প্রভাব পড়েনি। বরং পেঁয়াজের দাম কেজি প্রতি আরো ৫ থেকে ১০ টাকা করে বৃদ্ধি পেয়েছে। কয়েকদিন আগেও ৭০ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রি হলেও বুধবার টেকনাফ বাজারে পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ৭৫ থেকে ৮০ টাকায়। টেকনাফ বাস স্টেশনের অন্তত ১০ টি দোকান ঘুরে উক্ত দামে পেঁয়াজ বিক্রি করতে দেখা গেছে। দাম বাড়তি প্রসঙ্গে ব্যবসায়ীরা জানান, টেকনাফ বন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানী হলেও সে পেঁয়াজ তারা কিনতে পারেননা।

পেঁয়াজ চলে যায় চট্টগ্রামে, চট্টগ্রাম থেকে আবার কিনে টেকনাফে আনেন। তাই টেকনাফ বন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানী হলেও দাম বেশী।

Share

Leave a Reply

Advertisement

x

Check Also

https://coxview.com/wp-content/uploads/2023/01/BGB-Rafiq-24-1-23.jpeg

বিপুল পরিমাণ পপিক্ষেত ধ্বংস করল বিজিবি

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম; লামা-আলীকদম : পার্বত্য জেলা বান্দরবানে থানচি উপজেলা গহীণ অরণ্যে মাদক দ্রব্য প্রস্তুতকারক ...

https://coxview.com/coxview-com-footar-14-12-2023/