Home / প্রচ্ছদ / সাম্প্রতিক... / অপরাধ, আইন-আদালত / চকরিয়ায় গলায় ফাঁস লাগিয়ে স্কুল ছাত্রের রহস্যময় মৃত্যু

চকরিয়ায় গলায় ফাঁস লাগিয়ে স্কুল ছাত্রের রহস্যময় মৃত্যু

প্রতিকী ফটো

মুকুল কান্তি দাশ; চকরিয়া :

কক্সবাজারের চকরিয়ায় গলায় ফাঁস দিয়ে মহিউদ্দিন সাহেল (১৪) নামের এক স্কুল ছাত্র আত্মহত্যা করেছে। ১৯ আগষ্ট শনিবার সকাল ৮টার দিকে চকরিয়া পৌরসভার ভরামুহুরীস্থ গ্রামীন ব্যাংক এলাকায় ভাড়া বাড়িতে এ আত্মহত্যার ঘটনা ঘটে। নিহত ছাত্র মহিউদ্দিন উপজেলার কৈয়ারবিল ইউনিয়নরে হামিদউল্লাহ সিকদার পাড়ার বাসিন্দা সৌদি প্রবাসী জসিম উদ্দিনের ছেলে ও চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মহিউদ্দিনের বাবা জসিম উদ্দিন দীর্ঘদিন ধরে সৌদি প্রবাসী। পড়া-লেখার সুবিধার্থে দীর্ঘদিন ধরে চকরিয়া পৌরসভার নানা বাড়ির পাশে একটি ভাড়া বাসায় মা-ও ছেলে বসবাস করে আসছিল। গত বৃহস্পতিবার তার মা হজ্ব করতে সৌদি আরব যান। শনিবার ভোর ৬টার দিকে নানা তাকে ঘুম থেকে জাগিয়ে দেয়। পরে বাসার একটি রুমে ফ্যানের সাথে মায়ের ওড়না গলায় বেঁধে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে মহিউদ্দিন। এদিন সকাল ৮টার দিকে বাড়ির মালিক এ ঘটনা দেখে নানার বাড়ির লোকজনকে খবর দিলে তারা ঘটনাস্থলে এসে তাকে উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত ছাত্র মহিউদ্দিনের মামা ফয়সাল জানান, আমার ভাগিনা মহিউদ্দিন বাবা-মা’র প্রথম সন্তান। তার এক ছোটভাই কয়েকবছর আগে পানিতে ডুবে মারা যায়। মহিউদ্দিন চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠ থেকে ৮ম শ্রেণীর দ্বিতীয় সাময়িক পরীক্ষা দিয়েছে। এ পরীক্ষায় গণিতে ফেল করে সে। এতে প্রধান শিক্ষক নূরুল আখের তাকে জেএসসি পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেনা বলে বকাঝকা করেন। অন্যদিকে পরীক্ষায় অকৃতকার্য এবং বাবা-মা বিদেশে থাকায় সে হাতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েন। এ কারণে হয়তো সে আত্মহত্যা করতে পারে বলে আত্মীয়সহ স্থানীয় লোকজনের অভিমত।

ওই ছাত্রকে কোন ধরনের বকাঝকা করা হয়নি দাবি করে চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠের প্রধান শিক্ষক নুরুল আখের বলেন, অষ্টম শ্রেণীতে গণিত পরীক্ষায় যারা অকৃতকার্য হয়েছে তাদের ব্যাপারে করণীয় নির্ধারণ করতে গত ১১ আগষ্ট শুক্রবার ওই ছাত্রদের অভিভাবকদের স্কুলে ডেকে আনা হয়। ওই মিটিংএ অভিভাবকরা পুণরায় পরীক্ষা নেয়ার জন্য অনুরোধ করেন। এতে গত ১৮ আগষ্ট শুক্রবার ফেল করা পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে ফের পরীক্ষা নেয়া হয়। ওই পরীক্ষার ফলাফল এখনো হয়নি। এই পরীক্ষায় মহিউদ্দিনও অংশ নেয়। এরপরও কি কারণে সে আত্মহত্যা করেছে বুঝতে পারছিনা।

চকরিয়া থানার ওসি মো.বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করা হয়েছে। তার গলায় ওড়না প্যাঁচানোর দাগ রয়েছে। মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: