Home / প্রচ্ছদ / পেকুয়ায় সাজাপ্রাপ্ত আসামী আটক ও ইউনুছ হত্যা মামলার আসামী গ্রেপ্তার চট্টগ্রামে

পেকুয়ায় সাজাপ্রাপ্ত আসামী আটক ও ইউনুছ হত্যা মামলার আসামী গ্রেপ্তার চট্টগ্রামে

পলাতক আসামী গ্রেপ্তার

মুকুল কান্তি দাশ; চকরিয়া :

কক্সবাজারের পেকুয়ায় চাঞ্চল্যকর ইউনুছ হত্যা মামলার আসামী মোহাম্মদ ইসমাইল (৩০)কে চট্টগ্রাম মহানগরের বাকলিয়া থানা এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত মঙ্গলবার দিবাগত রাতে বাকলিয়া থানা পুলিশের সহায়তায় পেকুয়া থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে বাকলিয়ার ছৈয়দ শাহ রোডস্থ কারিগরি শ্রমিকলীগের অফিস থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তার হওয়া ইসমাইল টৈটং খলিফার মোরা এলাকার মৃত মকবুল আহমদের ছেলে।

পেকুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ জিয়া মোহাম্মদ মোস্তাফিজ ভূঁইয়া বলেন, গত বছরের ২৪ অক্টোবর টৈটং এর খুইন্যাভিটা এলাকায় ইউনুছকে হত্যা করা হয়। এঘটনায় নিহতের ছোট ভাই আব্দু শুক্কুর বাদি হয়ে ১২জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরো ৩-৪জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করে। মামলাটি তদন্ত করছেন থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শফিকুর রহমান।

অভিযানে নেতৃত্ব দেয়া ওসি আরো বলেন, এই মামলার এজাহারনামীয় ১২জনের মধ্যে ১ ও ২নং আসামীকে ইতিপূর্বে গ্রেপ্তার করা হয়। মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১০টার দিকে চট্টগ্রামের বাকলিয়া থানা এলাকায় এসআই শফিকুর রহমানসহ পুলিশের একটি দল নিয়ে অভিযান চালিয়ে ইসমাইলকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাকে বুধবার চকরিয়া সিনিয়ির জুডিসিয়াল ম্যাজিস্টেট আদালতে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে পেকুয়ায় নারী নির্যাতনের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী কায়েমউল্লাহ (৩৫)কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বুধবার ভোরে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত কায়েম মগনামা ইউনিয়নের সাতগড়িয়া পাড়ার মৃত ওবাইদুল হকের ছেলে।

পেকুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ জিয়া মো: মোস্তাফিজ ভূঁইয়া বলেন, গত বছর নারী নির্যাতনের ঘটনায় আদালতে দায়ের করা মামলায় আসামী কায়েম উল্লাহের বিরুদ্ধে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ২মাসের সশ্রম কারাদন্ডাদেশ প্রদান করা হয়। এই সাজা পরোয়ানা জারির পর কায়েম পলাতক ছিল। সোর্সের মাধ্যমে খবর পেয়ে বুধবার অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

Leave a Reply