Home / প্রচ্ছদ / সাম্প্রতিক... / ক্রীড়া / জেলা পর্যায়ে জাতীয় স্কুল ও মাদ্রাসা ক্রীড়া প্রতিযোগিতা সম্পন্ন

জেলা পর্যায়ে জাতীয় স্কুল ও মাদ্রাসা ক্রীড়া প্রতিযোগিতা সম্পন্ন

ফুটবলে চ্যাম্পিয়ন মালুমঘাট খৃস্টান হাসপাতাল উচ্চ বিদ্যালয় বালিকা দলের হাতে পুরস্কার তুলে দিচ্ছেন অতিথিবৃন্দ।

 

ক্রীড়া প্রতিবেদক :
৪৬ তম জাতীয় স্কুল ও মাদ্রাসা (গ্রীষ্মকালীন) ক্রীড়া প্রতিযোগিতা জেলা পর্যায়ে সম্পন্ন হয়েছে। গতকাল ৩০ আগস্ট বিকেলে বালক বিভাগের মর্যাদাকর ফুটবল ইভেন্টের ফাইনালে বয়স্ক ও বেশ ক’জন অছাত্র খেলোয়াড়দের নিয়ে গড়া পেকুয়া জিএমসি ইনস্টিটিউশন টাইব্রেকারে ৪-৩ গোলে ফেভারিট মালুমঘাট আইডিয়াল হাই স্কুলকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। দু’দলের নির্ধারিত সময়ের খেলা ০-০ ভাবে শেষ হলে ম্যাচ টাইব্রেকারে নিষ্পত্তি হয়। পুরো ম্যাচে পেকুয়ার চাইতে বেটার ফুটবল খেলে চকরিয়ার চ্যাম্পিয়ন স্কুল দলটি। কিন্তু স্ট্রাইকারদের গোল মিসের মহড়ায় সেরা দলটির কপাল পুড়ে।

এর আগে অনুষ্ঠিত মেয়েদের ফাইনালে চকরিয়ার মালুমঘাট মেমোরিয়াল খৃস্টান উচ্চ বিদ্যালয় টাইব্রেকারে ৩-২ গোলে সদর উপজেলার ঈদগাও আদর্শ শিক্ষা নিকেতন ফুটবল দলকে হারিয়ে শিরোপা জিতেছে।

হ্যান্ডবলের বালক-বালিকা ইভেন্টে কক্সবাজার বায়তুশ শরফ জব্বারিয়া একাডেমি কক্সবাজার সেরা হয়ে বিভাগীয় পর্যায়ে উন্নীত হয়েছে। বালক-কাবাডি বিভাগে কুতুবদিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় এবং বালিকা-কাবাডিতে ঈদগাও আদর্শ শিক্ষা নিকেতন চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। সাঁতার ইভেন্টের বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে একচেটিয়া আধিপত্য দেখিয়ে অধিকাংশ প্রাইজ জিতে নিয়েছে রামুর হাকিম-রকিমা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। তবে জিতেও সাঁতার প্রতিযোগিতায় সাফল্য অর্জনকারী স্কুলটির ১০ জন প্রতিযোগী আয়োজক কমিটির মহা-ভুলে পুরস্কার পায়নি।

এদিকে গতকাল বিকেলে কক্সবাজার সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে জেলা শিক্ষা অফিস আয়োজিত এই প্রতিযোগিতার এক পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান প্রধান শিক্ষক রাম মোহন সেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

এতে অতিথি ছিলেন- চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাহেদুল ইসলাম, জেলা শিক্ষা অফিসার সালেহ উদ্দিন চৌধুরী, কক্সবাজার সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক নাছির উদ্দিন, জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের সভাপতি ফজলুল করিম সাঈদী, জেলা ক্রীড়া সংস্থার যুগ্ম সম্পাদক হারুনর রশিদ প্রমূখ। পরে অতিথিবৃন্দ বিভিন্ন ইভেন্টে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার তুলে দেন।

Leave a Reply

%d bloggers like this: